দ্রুত গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায় ১৬টি – ২০২২ ! যা সকলের জানা প্রয়োজন

আপনি কি গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায় সম্পর্কে জানতে চান ? তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য।

ব্লগ থেকে টাকা আয় করার সবচেয়ে সহজ উপায় এবং সবচেয়ে মুনাফাজনক উপায় হল Google AdSense. অধিকাংশ ব্লগাররা গুগল এডসেন্স পাওয়ার জন্য আবেদন করে থাকে। কিন্তু সফল হয় না তারা ।

Google AdSense হলো সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপনী কোম্পানি অনলাইন ভিত্তিক। প্রত্যেকটা জিনিসের নিয়ম থাকে ঠিক তেমনিভাবে গুগল এডসেন্স এপ্লাই করার পূর্বে আমাদের কিছু নিয়ম-কানুন মেনে চলতে হবে।

যাতে করে আপনি Google AdSense approval না পাওয়ার কারণে হতাশ না হন ।

তাই আজ আমি গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব। পাশাপাশি সমস্ত খুঁটিনাটি বিষয়গুলো তুলে ধরব।

যাতে করে খুব সহজে কয়েক দিনের মধ্যে Google AdSense approval হয়ে যায়। আশা করি আপনি সমস্ত আর্টিকেলটি পড়বেন। চলুন আলোচনা শুরু করা যাক।

গুগল এডসেন্স পাওয়ার

গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায় ২০২২

আমি এখানে এডসেন্স পাওয়ার জন্য এমন ১৬টি নিয়ম বলব । যেগুলো প্রত্যেকটি নির্ভরযোগ্য এবং কার্যকারী । অতএব আপনার করণীয় হলো নিচের উপায়গুলো ফলো করা । তাহলে অবশ্যই আপনি সফলতা লাভ করতে পারবেন ।

১/custom domain ব্যবহার করা

যদি আপনি আপনার ব্লগে ফ্রী ডোমেইন ব্যবহার করেন। অর্থাৎ যাকে বলা হয় সাব ডোমেইন যেমন: (blogspot.com) ইত্যাদি।

তাহলে আজকেই ভালো মানের ডোমেইন কিনে ফেলুন। যেমন: (.com, .in, .info, .org)। কেননা সাব ডোমেইন দিয়ে গুগল এডসেন্স পাওয়া কঠিন।

আরো পড়ুন :-

২/ ব্লগ অবশ্যই User friendly হতে হবে

আপনার ব্লগ যেন user friendly হয়। এবং  অনেক ফাস্ট হয়। অর্থাৎLoading speed যেন ভালো হয়।

কেননা যদি loading speed ভালো না হয়‌ তাহলে গুগল এডসেন্স পাওয়া খুব কঠিন হয়ে যাবে।

৩/ SEO friendly হতে হবে

 ব্লগের থিম এবং প্রতিটি পোস্ট যেন SEO friendly হয় ‌। কেননা  গুগল এডসেন্স দ্রুত পাওয়ার ক্ষেত্রে এটা সাহায্য করবে। 

যদি SEO friendly না হয় তাহলে এডসেন্স অনুমোদন করবে না।

৪/গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায় হলো উন্নত মানের আর্টিকেল লিখা 

অনেকে বলে ২০টি আর্টিকেল লিখতে হবে , অনেকে বলে ২৫ টা আবার কেউ বলে ৪০ টা আর্টিকেল লিখতে হবে।

এক্ষেত্রে আমি বলব। ভালো মানের আর্টিকেল লিখতে হবে। আপনি যদি 500 থেকে 700 ওয়ার্ড দিয়ে আর্টিকেল লেখেন তাহলে বলব 40 টি আর্টিকেল লিখে গুগল এ্যাডসেন্স এপ্লাই করবেন। 

আর যদি 700 থেকে 1000 ওয়ার্ড দিয়ে আর্টিকেল লিখেন তাহলে বলব ৩০টি পোস্ট লেখে এপ্লাই করবেন ।

আর যদি 2000 ওয়ার্ড দিয়ে আর্টিকেল লিখেন তাহলে বলব কমপক্ষে ২০টি আর্টিকেল লিখে গুগল এডসেন্স এপ্লাই করবেন।

আশা করি আপনি এ সমস্ত নিয়ম যদি মানেন তাহলে খুব দ্রুত গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রুভ হয়ে যাবে আপনার সাইটে।

৫/ ৫টি পেজ তৈরি

আপনার ব্লগে গুগল এডসেন্স পাওয়ার অনেক গুরুত্বপূর্ণ উপায় হল কমপক্ষে ৫টি পেজ তৈরী করতে হবে।

Contact us, about us, privacy policy, disclaimer, terms and conditions এই পেইজগুলো থাকলে খুব দ্রুত গুগল এডসেন্স পাওয়া যায়।

৬/ গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায় হলো লম্বা পোস্ট লেখা

প্রতি পোস্টে অবশ্যই 500/600 word’s থাকতে হবে  Google AdSense approval হওয়ার জন্য।

তবে ভালো হল  1000 থেকে 2000 মধ্যে word’s থাকা। বর্তমানে গুগোল বড় বড় আর্টিকেল এর ক্ষেত্রে গুরুত্ব বেশি দেয়।

চেষ্টা করবেন একটি লেখার মধ্যে পরিপূর্ণ তথ্য দিতে। কেননা যত তথ্য থাকবে তত ভিজিটর সময় দিবে।

আর যত সময় দিবে তত আপনার ঐ পোষ্টের মান বাড়তে থাকবে। আর বর্তমান সময়ে বড় বড় আর্টিকেল বেশি রেঙ্ক করে তাড়াতাড়ি।

তবে আর্টিকেল বেশি বড় করতে গিয়ে অহেতুক কথা বা অহেতুক বাক্য দিয়ে বড় করবেন না। ফলে ভিজিটররা আপনার আর্টিকেল পড়ে বিরক্তবোধ করবে।

ভিজিটর ধীরে ধীরে কমে যাবে। ধীরে ধীরে আপনার ওয়েবসাইটের রেঙ্ক কমে যাবে। বড় আর্টিকেল লেখার পাশাপাশি আপনাকে এসইওর দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

কেননা ওয়েবসাইট রেঙ্ক করার ক্ষেত্রে বা আর্টিকেল রেঙ্ক করার ক্ষেত্রে এসইও অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

৭/  নেভিগেশন বার ঠিকঠাকভাবে দিতে হবে।

 বিভিন্ন ক্যাটাগরি দিয়ে সুন্দর একটি মেনু বার তৈরি করুন ‌ যাতে করে সবাই পছন্দ করে। 

অর্থাৎ আপনার ওয়েবসাইট এমনভাবে সাজাবেন যাতে করে যেকোনো ব্যক্তি আপনার যে কোন পেজে খুব সহজে যেতে পারে।অতএব আপনি প্রত্যেকটা পোস্টের জন্য ক্যাটাগরি আলাদা করে রাখতে পারেন।

পাশাপাশি সুন্দর মেনু তৈরি করতে পারেন।  যাতে করে যে কেউ আপনার ব্লগ সম্পর্কে বুঝতে পারে যে এটা কোন ক্যাটাগরির লেখা।

পাশাপাশি সে যেন আপনার যে কোন লেখায় খুব সহজে যেতে পারে। তবে আর একটা বিষয় অ্যাড করলে অনেক ভালো সেটা হল টেবিল অফ কন্তেন্ট। অর্থাৎ প্রত্যেকটা পোস্ট এর জন্য সূচিপত্র তৈরি করা।

এর ফলে প্রতিটি ভিজিটরের জন্য এটা খুব সহজ হয়ে যায়। তারা তাদের মূল উদ্দেশ্য মুহূর্তের মধ্যেই পড়তে পারে। ফলে তাদের সময় নষ্ট হয় না।

পাশাপাশি প্রত্যেকটা পেজের সাথে হোম পেজের সাথে যুক্ত রাখুন। যাতে করে যে কেউ খুব সহজেই হোম পেজে ফিরে আসতে পারে।

৮/copyright image ব্যবহার না করা

কঁপিরাইট ইমেজ অর্থাৎ অন্যের ছবি নিজের বলে চালিয়ে । এরকম ছবি ব্যবহার করার থেকে বেঁচে থাকতে হবে। কেননা এসব ছবি ব্যবহার করলে গুগল এডসেন্স পাওয়ার সম্ভাবনা খুব কম।

৯/ অন্য বিজ্ঞাপন না থাকা

অর্থাৎ যখন আপনি গুগল এডসেন্স এপ্লাই করবেন তখন যেন সেখানে অন্য কোন ad Network এর  ad না থাকে । কেননা এটাকে Google পছন্দ করেনা।

১০/ ১০০% ইউনিক কনটেন্ট লেখা

 ব্লগে ইউনিক কন্টেন্ট লিখতে হবে। কপি পেস্ট করে লেখা যাবে না। তাহলে আপনি ইউনিক ভিজিটর পাবেন।  কপি করে লেখলে  Google AdSense approval হবে না ।

১১/ post / page Google index করাতে হবে

যদি কোন পোস্ট বা পেজ  index না করান তাহলে Google  আপনার সম্পর্কে জানতে পারবে না। তাই প্রত্যেক পোস্টের ইনডেক্স করতে হবে‌‌।

১২/ গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায় হলো আপনার সাইটের settings কমপ্লিট করুন

আপনার সাইটটি যদি ব্লগারে হয় তাহলে robots.txt সেটাপ করুন। অর্থাৎ সাইট ম্যাপ তৈরি করে তা সেটআপ করুন। যাতে  গুগল আপনাকে খুঁজে পায়।

১৩/পুরাতন ডোমেইন হওয়া

এ্যাডসেন্স এপ্লাই করার পূর্বে অবশ্যই যেন ডোমেইন এর বয়স 2/3 মাস হয়। তবে সব থেকে ভালো হলো ৬/৭ মাস অতিবাহিত  হওয়ার পর এডসেন্স এপ্লাই করা।

১৪/ নিয়মিত লেখালেখি করা

নিয়মিত লেখালেখি  আপনার ব্লগকে সার্চ ইঞ্জিন এর কাছে অনেক গ্রহণযোগ্য করে তুলবে।

সার্চ ইঞ্জিন প্রতিমুহূর্তে আর্টিকেল ইন্ডেক্স করার জন্য প্রস্তুত থাকে। যখনই কোনো লেখা দেন তখনই ইন্ডেক্স করে নেয়। 

১৫/ AdSense policy অনুসরণ করা।

গুগল এডসেন্স এর কিছু নিয়ম আছে। সেগুলো এডসেন্স এপ্লাই এর পূর্বে পড়তে হবে ভালোভাবে।

৬/ নিচের এই কয়েকটি বিষয় থেকে বেঁচে থাকা

  1.  অ্যালকোহল ও তামাক জাতীয় পণ্য নিয়ে লেখা যাবে না।
  2.  বোমা ও যুদ্ধাস্ত্র ইত্যাদি এসব নিয়ে কখনো লেখা যাবে না।
  3. ড্রাগস নিয়ে কখনো লেখা যাবে না
  4. সেক্সুয়াল বিষয় নিয়ে কখনো লেখা যাবে না।
  5. হ্যাকিং নিয়ে লেখা যাবে না
  6. প্লে স্টোর থেকে ব্যান হওয়া app সম্পর্কে কোন   লেখা যাবে না।
  7. কাউকে গালিগালাজ করা যাবে না।

এ সমস্ত বিষয় আপনার সাইটে থাকলে তাহলে আপনি কখনো গুগল এডসেন্স অ্যাপ্রুভ পাবেন না।

পরিশেষে বলব: এতক্ষণ গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায় সংক্রান্ত যে বিষয়গুলো বললাম সে বিষয়গুলো যদি ফলো করা হয়।

তাহলে আশা করা যায় 100% Google AdSense approval হবে এবং অনলাইন থেকে প্রচুর পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। যদি লেখাটি ভালো লাগে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। এবং শেয়ার করবেন।

Leave a Comment