আলহামদুলিল্লাহ অর্থ কি , ফজিলত ও গুরুত্ব কি এবং কখন বলতে হয় ?

আপনি আলহামদুলিল্লাহ অর্থ কি এ সম্পর্কে জানতে চান ? তাহলে এই আর্টিকেলটা শুধু আপনার জন্য।

আমরা মুসলিম হিসেবে অধিকাংশ সময় আলহামদুলিল্লাহ বলে থাকি। এই শব্দ সম্পর্কে আমরা খুবই পরিচিত। অথচ এর অর্থ কি এবং কোথায় ব্যবহার করা হয় এ সম্পর্কে আমরা কিছুই জানিনা।

তাই আজ আমি আপনাদের সুবিধার্থে আলহামদুলিল্লাহ অর্থ কি ও কখন বলতে হয় এবং এর ফজিলত ও গুরুত্ব কি এ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব।

অতএব এ সম্পর্কে জানতে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে আলহামদুলিল্লাহ সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে পারবেন।

আলহামদুলিল্লাহ অর্থ কি

আলহামদুলিল্লাহ অর্থ কি ?

এটা হলো আরবি শব্দ। এই শব্দটি দুইটি অংশ নিয়ে তৈরি হয়েছে।

  • আলহামদু (الحمد) হলো প্রথম অংশ । এর অর্থ : সমস্ত প্রশংসা ।
  • লিল্লাহ ( للله) হলো দ্বিতীয় অংশ। এর অর্থ : আল্লাহ তাআলার জন্য।

এই হিসেবে দুনো অংশ মিলে তৈরি হয় আলহামদুলিল্লাহ (الحمد لله ) আর এর অর্থ হল : সমস্ত প্রশংসা আল্লাহ তায়ালার জন্য।

আলহামদুলিল্লাহ কখন বলতে হয় ?

বর্তমানে আমারা অধিকাংশ মানুষই জানি না এটা বলার সময় কখন ? আমরা অনেকেই এটার পরিবর্তে সুবহানাল্লাহ , জাযাকাল্লাহ ইত্যাদি বলে থাকি।

ফলে নানান ক্ষেত্রে হাসির পাত্র হয়ে যাই। এখানে আপনাদের সুবিধার্থে আমি কয়েকটি ক্ষেত্র বলব যে ক্ষেত্রগুলোতে আলহামদুলিল্লাহ বলতে হয়।

  • আল্লাহ তায়ালা আমাদের শরীরকে সুস্থ রেখেছেন এই জন্য আলহামদুলিল্লাহ বলা।
  • কোন আনন্দ বা খুশির সংবাদ শুনলে তখন এটা বলা।
  • কোন কাজ ভালোভাবে সম্পূর্ণ করার পর আল্লাহর প্রতি শুকরিয়া হিসেবে বলা।
  • কেউ যদি আপনাকে জিজ্ঞাসা করে আপনি ভালো আছেন কিনা ? তখন আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি বলে উত্তর দেওয়া।
  • কোন ব্যক্তির সুস্থতার খবর শুনলে তখন এটা বলে শুকরিয়া আদায় করা।
  • যখন আপনি হাচি দিবেন তখন এটা বলবেন।
  • আল্লাহ তাআলা আপনাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন এ জন্য শুকরিয়া হিসেবে এটা বলা।
  • আল্লাহতালা আপনার হাত , পা , চোখ ইত্যাদি সমস্ত অঙ্গকে সুস্থ রেখেছেন এজন্য শুকরিয়া হিসেবে এটা বলা।
  • আল্লাহ তাআলা আমাদেরকে যে নানা রকম নেয়ামত দিয়েছেন এর শুকরিয়া হিসেবে এটা বলা।
  • আল্লাহ তায়ালার সৃষ্টির জন্য প্রশংসা হিসেবে এটা বলা।
  • চলতে – ফিরতে , উঠতে – বসতে এবং খাওয়া-দাওয়ার পর আলহামদুলিল্লাহ বলা।

আরো পড়ুন : ফি আমানিল্লাহ অর্থ কি ? | ফি আমানিল্লাহ কেন বলা হয় ?

আলহামদুলিল্লাহ এর প্রতি উত্তরে কি বলতে হয় ?

স্বাভাবিকভাবে শুকরিয়া হিসাবে কেউ আলহামদুলিল্লাহ বললে এর প্রতি উত্তরে কিছুই বলতে হয় না। তবে কেউ যদি হাচি দেয়ার সময় আলহামদুলিল্লাহ বলে তাহলে তার উত্তরে ইয়ারহামুকাল্লাহ বলতে হয়। 

হাচির সময় আলহামদুলিল্লাহ এর উত্তরে ইয়ারহামুকাল্লাহ কেন বলা হয় ?

 হাচি দেয়ার কারণে শরীর থেকে নানা রকম ক্ষতিকারক জীবাণু বের হয়ে যায়। এর ফলে শুকরিয়া হিসেবে আলহামদুলিল্লাহ বলা হয়।

যখন কেউ শুকরিয়া হিসেবে আলহামদুলিল্লাহ বলল তখন আপনি তার জন্য ইয়ারহামুকাল্লাহ অর্থাৎ আল্লাহ আপনার উপর রহম করুন এ কথা বলে দোয়া করে দিলেন। আশা করি আপনি বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন।

আলহামদুলিল্লাহ এর গুরুত্ব কি ?

আলহামদুলিল্লাহ বলার গুরুত্ব অনেক রয়েছে ।

  • আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে অনেক নেয়ামত দান করেছেন। এই হিসেবে আমাদেরকে আলহামদুলিল্লাহ বলে শুকরিয়া জ্ঞাপন করতে হবে। যা আল্লাহ তাআলা আমাদেরকে সূরা ফাতিহার প্রথম আয়াতের মাধ্যমে শিক্ষা দিয়েছেন।
  • আলহামদুলিল্লাহ জাতীয় শব্দ দিয়ে শুকরিয়া আদায় করলে আল্লাহ তাআলা খুশি হন। আর আমরা সকলেই চাই আল্লাহ তায়ালা খুশি হোক।
  • কুরআনের নানান জায়গায় আল্লাহ তায়ালা নিজের প্রশংসা করেছেন। আমাদেরকে আল্লাহ তায়ালা আলহামদুলিল্লাহ জাতীয় শব্দ দিয়ে প্রশংসা করার নির্দেশ দিয়েছেন।
  • আল্লাহ তাআলার প্রশংসা করার জন্য আলহামদুলিল্লাহ থেকে কোন উত্তম বাক্য নেই। 

আলহামদুলিল্লাহ এর ফজিলত কি ?

অনেক ফজিলত রয়েছে। কয়েকটি ফজিলত তুলে ধরা হলো।

  • রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন সর্বোত্তম দোয়া হলো আলহামদুলিল্লাহ । ( তিরমিযী শরীফ ৩৩৮৩ নাম্বার হাদিস )
  • রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন আল্লাহ তার কাছে চারটি বাক্য প্রিয় । সেগুলো হলো : (১) সুবহানাল্লাহ আলহামদুলিল্লাহ  (২) লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ (৩)  আল্লাহু আকবার ( মুসলিম শরীফ : ২১৩৭ নাম্বার হাদিস )
  •  আলহামদুলিল্লাহ এটা মিজানের পাল্লাকে পূর্ণ করে দেয়।
  • সর্বোত্তম দোয়া হলো আলহামদুলিল্লাহ
  • পৃথিবী তো একদিন না একদিন ধ্বংস হয়ে যাবে কিন্তু আলহামদুলিল্লাহ এর সাওয়াব থেকে যাবে।

আলহামদুলিল্লাহ আলা কুল্লি হাল এর অর্থ কি ?

আলহামদুলিল্লাহ আল্লা করলে হাল এর শাব্দিক বিশ্লেষণ

এখানে চারটি অংশ রয়েছে।

  • আলহামদুলিল্লাহ হলো প্রথম অংশ । এর অর্থ : সমস্ত প্রশংসা আল্লাহ তায়ালার জন্য ।
  • আলা হলো ২য় অংশ । এর অর্থ : উপরে ।
  • কুল্লি হলো ৩য় অংশ । এর অর্থ : প্রত্যেক বা সর্ব ।
  • হাল হলো চতুর্থ অংশ । এর অর্থ : অবস্থা ।

 এ হিসেবে সম্পূর্ণ অর্থ হলো : সর্বাবস্থায় আল্লাহ তায়ালার জন্য সমস্ত প্রশংসা।

আপনি কষ্টে থাকেন অথবা সুখে থাকেন আল্লাহ শুকরিয়া হিসেবে এই কথাটি বলা। এতে পরিপূর্ণ শুকরিয়া আদায় হবে।

পরিশেষে বলবো : উপরে আলহামদুলিল্লাহ অর্থ কি সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করলাম।

আশা করি আপনি এ ব্যাপারে পরিপূর্ণ ধারণা পেয়েছেন এবং অনেক উপকৃত হয়েছে। অতএব আপনি আপনার বন্ধুবান্ধবদের সাথে শেয়ার করবেন। পাশাপাশি কমেন্ট করে জানাবেন। ধন্যবাদ।

আলহামদুলিল্লাহ এর জবাবে কি বলতে হয় ?

আলহামদুলিল্লাহ জবাবে কিছুই বলতে হয় না । তবে হাচি দেয়ার পর আলহামদুলিল্লাহ বললে ইয়ারহামুকাল্লাহ বলতে হয়। 

আলহামদুলিল্লাহ ইংরেজি বানান কি ?

আলহামদুলিল্লাহ ইংরেজি বানান হলো : alhamdulillah

হাঁচি দিলে আলহামদুলিল্লাহ কেন বলতে হয় ?

হাচি দেয়ার কারণে শরীর থেকে নানা রকম ক্ষতিকারক জীবাণু বের হয়ে যায়। এই কারণে শুকরিয়া হিসেবে আলহামদুলিল্লাহ বলা হয় ।

Leave a Comment