কৃষি ব্যবসা আইডিয়া

আপনি কি জানতে চান কৃষি ব্যবসা আইডিয়া সম্পর্কে ? বর্তমান সময়ে কৃষি ব্যবসা অনেক চাহিদা রয়েছে। আশা করি ভবিষ্যতেও থাকবে।

আপনি প্রশিক্ষণ নিয়ে যদি কৃষি ব্যবসা শুরু করেন তাহলে খুব সহজেই ভালোভাবে টাকা ইনকাম করতে পারবেন প্রতিমাসে। পাশাপাশি খুব সহজে সফলতা অর্জন করতে পারবেন। ব্যবসায় সফল হওয়ার জন্য অবশ্য আপনাকে লেগে থাকতে হবে আমার সময় দিতে হবে।

পাশাপাশি ভালোভাবে জেনে শুনে ব্যবসা করতে হবে। তাহলে খুব সহজেই অল্প সময়ে আপনি এই ব্যবসায় সফল হতে পারবেন।

আজ আমি কৃষি ব্যবসা আইডিয়া সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব। এগুলো ফলো করলে আপনি খুব সহজেই কৃষি ব্যবসায় সফলতা অর্জন করতে পারবেন।

কৃষি ব্যবসা আইডিয়া
কৃষি ব্যবসা আইডিয়া

কৃষি ব্যবসা আইডিয়া

আমি এখানে কৃষি সম্পর্কে এমন কিছু   আইডিয়া দেব যেগুলো প্রত্যেকটি ঘরে বসে বসে করতে পারবেন। কোন ধরনের ঝামেলা ছাড়াই। তাই আপনি যদি ঘরে বসে বসে ব্যবসায় সফলতা অর্জন করতে চান অবশ্যই আপনাকে

  1. সময় দিতে হবে
  2. পরিশ্রম করতে হবে।

তাহলে সফলতা আপনার পিছনে পিছনে আসবে। চলুন আলোচনা শুরু করা যাক ।

জৈব সার উৎপাদন করে ব্যবসা

জৈব সারের অনেক চাহিদা রয়েছে। কেননা এই সার ব্যবহার করলে ফলন অনেক ভালো হয় অন্যান্য সারের তুলনায় ‌।

আমাদের বাংলাদেশে জৈব সার বাণিজ্যিকভাবে তৈরি করা হয়। আপনি খুব সহজেই জৈবসার উৎপাদন করতে পারবেন। কোন ধরনের কষ্ট এবং খরচ ছাড়াই।

অনেকেই জৈব সার তৈরি করে ভালো ব্যবসা করছেন। এবং তারা খুব সহজেই সফলতা অর্জন করছেন। আর জৈব সার তৈরি করা হয় আবর্জনা , গোবর , হাড়ের গুড়া , সরিষার খৈল , মুরগির বিষ্ঠা , চা পাতি , ধানের চিটা ইত্যাদি আরও নানান বিষয় দিয়ে।

জৈব সার সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে বাণিজ্যিকভাবে তৈরি হচ্ছে জৈব সার নামক আর্টিকেলটি পড়তে পারেন। তাহলে আপনি আরো জৈব সার সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে পারবেন।

যখন আপনি জৈব সার সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানবেন তখন আপনার জন্য জৈব সার তৈরি করা সহজ হয়ে উঠবে। পাশাপাশি এই সার নিয়ে ব্যবসা করা আপনার জন্য সহজ হয়ে উঠবে।

মাশরুম চাষ করে কৃষি ব্যবসা আইডিয়া

মাশরুম এটা অনেক সুস্বাদু , পুষ্টিকর  এবং জনপ্রিয় খাবার। পাশাপাশি এর মধ্যে রয়েছে ভিটামিন , প্রোটিন , মিনারেল ইত্যাদি। মাশরুম এর অনেক চাহিদা রয়েছে।

বর্তমানে  বড় বড় খাবার হোটেলে , সুপার শপ এবং চাইনিজ রেস্টুরেন্টে মাশরুমের খাবার পাওয়া যায় অর্থাৎ মাশরুম দিয়ে তৈরি খাবার পাওয়া যায়। মানুষ এই খাবারগুলো খেতে অনেক পছন্দ করে।  এই মাশরুমের চাষ আজ থেকে চার থেকে পাঁচ হাজার বছর আগে মিশরে চাষ করা হতো।

এবং তারা এটাকে অমরত্বের মূল উৎস মনে করত। মোটকথা মাশরুম দিয়ে তৈরি খাবার অনেক চাহিদা পূর্ণ। অতএব আপনি মাশরুম চাষ করে সেগুলো বিক্রি করে খুব সহজেই সফলতার উচ্চ শিখরে পৌছাতে পারেন।

মাশরুম সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য।

  • মাশরুম চাষ করার জন্য কোন আবাদি জমির প্রয়োজন পরে না। যে ব্যক্তির জমির নেই সে ঘরে বসেই মাশরুম তৈরি করতে পারেন।
  • মাশরুম তৈরি করার জন্য অবশ্যই আপনাকে প্রথমে প্রশিক্ষণ নিতে হবে। মাশরুম উন্নয়ন ইনস্টিটিউট তারা প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকেন।
  • প্রশিক্ষণ নিয়ে মাশরুম চাষ করলে আপনি খুব সহজেই সফলতা অর্জন করতে পারবেন।
  • 5 হাজার টাকা দিয়েই মাশরুম চাষ শুরু করা সম্ভব।
  • মাশরুম চাষের ক্ষেত্রে কোন ধরনের ঝুঁকি নেই।
  • মাশরুম তৈরি হতে 10 থেকে 15 দিন সময় লাগে।

ফল চাষ হলো কৃষি ব্যবসা আইডিয়া

বর্তমানে ফলের প্রতি মানুষের চাহিদা অনেক রয়েছে। বিশেষ করে ফরমালিন মুক্ত ফল। নানা ধরনের ফল রয়েছে যেমন : আম , আপেল , আঙ্গুর ইত্যাদি আরও নানান ফল। আপনি চাইলে আমের চাষ করতে পারেন। কেননা বর্তমানে আমের প্রতি মানুষের চাহিদা বেশি।

বিশেষ করে ফরমালিনমুক্ত আম। আপনি সরাসরি বাগান থেকে ফরমালিন মুক্ত আম বিক্রি করতে পারেন। ইচ্ছে করলে অনলাইনে বিক্রি করতে পারেন। দিন যত যাচ্ছে মানুষের ফরমালিনমুক্ত আমি প্রতি চাহিদা বাড়ছে।

অতএব আমের চাষ করে ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারেন। আমের পাশাপাশি অন্যান্য চাহিদা যুক্ত ফল চাষ করে ও ভালো ব্যবসা করতে পারেন।

নার্সারি দিয়ে কৃষি ব্যবসা আইডিয়া

ফল , ফুল ও নানান মূল্যবান গাছের বর্তমানে অনেক চাহিদা রয়েছে। দিন যত যাচ্ছে গাছের প্রতি মানুষের ভালোবাসা ও চাহিদা বেড়েই চলছে ।

অতএব এসমস্ত গাছগাছালির নার্সারি করতে পারেন। আর এই নার্সারির ব্যবসা করে আপনি খুব সহজেই লাভবান হতে পারবেন। আপনি শহরে  অথবা গ্রামে যে কোনো স্থানে এই নার্সারি দিতে পারেন । সবচেয়ে ভালো হয় বড় কোনো জায়গায় এই গাছ গাছালির নার্সারি দেওয়া।

পাশাপাশি আপনি আপনার নার্সারিতে ভালো ভালো আনকমন আনকমন গাছগাছালি রাখবেন। তাহলে আপনি আরও দ্রুত সফলতা অর্জন করতে পারবেন এই নার্সারির ব্যবসায় ।

ফুল চাষ হলো কৃষি ব্যবসা আইডিয়া

ফুল এটা অনেক চাহিদা পূর্ণ পণ্য। দিন যত যাচ্ছে ফুলের চাহিদা বাড়ছে। কেননা মানুষ বিবাহ-শাদী থেকে শুরু করে নানান ধরণের অনুষ্ঠানে এই ফুল ব্যবহার করে থাকে। পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের দিবসকে কেন্দ্র করে ফুল ব্যবহার করে থাকে।

তাহলে বুঝতে পারলাম ফুল একটি চাহিদাপূর্ণ পণ্য। অতএব আপনি নানান ধরনের ফুল চাষ করে ভালো পরিমাণ টাকা প্রতি মাসে ইনকাম করতে পারেন।

ফুল ইচ্ছা করলে সরাসরি বিক্রি করতে পারেন আবার অনলাইনে বিক্রি করতে পারেন। আরেকটি বিষয় হলো ফুল খুচরা বিক্রি করতে পারেন আবার পাইকারি বিক্রি করতে পারেন।

পরিশেষে বলব : উপরে কৃষি ব্যবসা আইডিয়া সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হলো। আপনি ইচ্ছে করলে উক্ত আইডিয়াগুলো গ্রহণ করে কৃষি ব্যবসা শুরু করে দিতে পারেন।

আশা করি খুব সহজেই সফলতার উচ্চ শিখরে পৌঁছে যাবেন। এর জন্য অবশ্যই নিয়ম অনুযায়ী এই ব্যবসা করতে হবে। যদি এই লেখাটি ভালো লেগে থাকে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন :-

  1. কসমেটিকস পাইকারি বাজার কোথায় কোথায় রয়েছে ?
  2. ছাত্রদের জন্য ব্যবসা আইডিয়া ১৮টি যেগুলো খুবই লাভজনক
  3. ক্ষুদ্র ব্যবসার তালিকা
  4. ঘরোয়া ব্যবসা

Leave a Reply

Your email address will not be published.

one × 2 =