হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায়

আপনি কি হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায় জানতে চান ? হজম শক্তি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। যা প্রত্যেক ব্যক্তির শরীর সুস্থ থাকার জন্য অতি আবশ্যক।

যদি কোনো মানুষের শরীরে হজম শক্তির অভাব হয় বা হজম শক্তির কার্যকলাপে কোনরূপ বাধাগ্রস্ত হয় ,তখন শরীরের বিভিন্ন রকমের রোগের আবির্ভাব হয়।

যেমন: ডায়রিয়া, কোষ্ঠকাঠিন্য, স্থূলতা, এসিডিটি, ওজন বৃদ্ধি পায়, রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বেড়ে যায় ইত্যাদি বিভিন্ন সমস্যা তৈরি হয়, যা শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকারক। আজ আমরা আলোচনা করব সহজ পদ্ধতিতে হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায়।

হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায়
হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায়

হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায়

হজম বৃদ্ধি পাওয়ার উপায় সমূহ জানার পূর্বে, আমাদেরকে হজম শক্তি কমে যাওয়ার কারণ সম্পর্কে অবগত হওয়া অতি আবশ্যক। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক

হজম শক্তি কমে যাওয়ার কারণ সমূহ:

১. দ্রুত খাবার আহার করা

হজম শক্তি কমে যাওয়ার অন্যতম কারণ হলো দ্রুত খাবার খাওয়া। আমাদের মাঝে অনেকেই এমন রয়েছে যারা, খাবার ভালোভাবে নাচিবি গিলে ফেলে, এর ফলে হজম শক্তি কমে যায়।

২. টিভি বা মোবাইল ব্যবহার

বর্তমান সময় অধিকাংশ মানুষ খাবার খাওয়ার সময় হয়তো টিভি দেখে, নতুবা ফেসবুক, ইউটিউব , গেমস ইত্যাদিতে ব্যস্ত থাকে। এটা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকারক। কেননা খাবার খাওয়ার সময় যখন টিভি কিংবা মোবাইল চালাতে ব্যস্ত থাকলে,

তখন আপনি অনুধাবন করতে পারবেন না যে, আপনি কি পরিমান খাবার খাচ্ছেন, অথবা খাবার শেষে, সাধারণভাবে খাবার খেলে যে প্রতিক্রিয়া বা স্বস্তি লাভ হয়, সেটা কখনোই পাবেন না। এভাবে খাবার খাওয়ার ফলে আপনার হজম শক্তি কমে যাবে, পাশাপাশি পেটে মেদ বৃদ্ধি পাবে।

৩. অনিয়মিত খাবার গ্রহণ

নিয়মিত খাবার খাওয়ার ফলেও হজম শক্তি কমে যায়। আমরা একদিন সকালের খাবার খাই দশটায়, অপর‌ দিন সকালের খাবার খাই সাতটা- আট্টায়। এভাবে খাবার গ্রহণের ফলে আপনার হজম শক্তি কমে যায়। পাশাপাশি শরীরের বিভিন্ন রোগের আবির্ভাব ঘটে।

৪. মানসিক দুশ্চিন্তা, অনিয়মিত ঘুম

অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা ও অনিয়মিত ঘুমের কারণে হজম শক্তি কমে যায়। হজম শক্তি বাড়াতে আপনাকে অবশ্যই মাত্রাতিরিক্ত চিন্তা কমাতে হবে, পাশাপাশি নিয়মিত সঠিক সময় ঘুমাতে হবে। অল্প ঘুম এর কারণে এক রকমের অস্বস্তি তৈরি হয়, যার কারণে হজম শক্তি কমে যায়।

৫. তৈলাক্ত খাবার, চা-কফি, পান

মাত্রাতিরিক্ত তেল জাতীয় খাবার গ্রহণের কারণে হজম শক্তি কমে যায়। অনুরূপ অতিরিক্ত চা-কফি, পান, গুল ইত্যাদি খাওয়ার ফলেও হজম শক্তি কমে যায়। সবকিছু পরিমিত খেতে হবে, অন্যথায় হজম শক্তি কখনোই বৃদ্ধি পাবে না।

৬. প্যানক্রিয়াস 

প্যানক্রিয়াস নামে আমাদের দেহে একটি অঙ্গ রয়েছে। যদি কোনো কারণবশত ওই অঙ্গে ইনফেকশন হয়, তাহলে ধীরে ধীরে হজম শক্তি কমে যায়। সে ক্ষেত্রে আবশ্যক হলো কোন অভিজ্ঞ ডাক্তার থেকে পরামর্শ নেওয়া।

৭. প্রভিতি কারণ সমূহ: 

খাদ্যনালীর সমস্যা , পাকস্থলীর সমস্যা, মাত্রাতিরিক্ত ঔষধ খাওয়া, ইত্যাদি এর কারনেও কখনো কখনো হজম শক্তি কমে যায়। 

হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায় সমূহ:

১. মনোযোগ সহকারে খাবার খাওয়া

আমরা সাধারণত খাবার খাওয়ার সময় খুবই উদাসীন থাকি, কি খাচ্ছি যেন নিজেই জানিনা, খাবারের প্রতি এক রকমের অনীহা প্রকাশ থাকে। এটা মোটেও ঠিক নয়, আপনাকে খাবার খাওয়ার সময় অবশ্যই খাবার খাওয়ার খেয়াল রাখতে হবে, আপনাকে এটা মনে করতে হবে যে আপনি খাবার খাচ্ছেন।

খাবার খাওয়ার সময় অতিরিক্ত গল্পগুজব করা যাবে না। খাবার গুলো কে অবশ্যই ভালোভাবে চিবিয়ে খেতে হবে, ফলে হজম শক্তি বৃদ্ধি পাবে এবং অতি সহজে খাবার হজম হবে।

২. প্রাকৃতিক ভাবে হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায় হলো ক্যালসিয়াম যুক্ত খাবার

হজম শক্তি বৃদ্ধি করতে আপনাকে অবশ্যই ক্যালসিয়াম যুক্ত খাবার খেতে হবে। ক্যালসিয়াম যুক্ত খাবার হজম শক্তি বৃদ্ধি করতে খুব কার্যকারী ভূমিকা পালন করে। তাই প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় ক্যালসিয়াম যুক্ত খাবার যোগ করুন।

৩. লেবুর রস

অতি সহজে খাবার হজম হ‌ওয়ার সহজ পদ্ধতি হলো খাবারের সঙ্গে লেবুর রস খাওয়া । লেবু হজম শক্তি বৃদ্ধি করে। চাইলে খাবারের পর লেবুর পানি খেতে পারেন।

৪. পেটে হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায় হলো দুধ

হজম শক্তি বৃদ্ধির ক্ষেত্রে দুধের কোন বিকল্প নেই। দুধ ক্যালসিয়াম ও প্রোটিনের পাশাপাশি হজম শক্তি বৃদ্ধি করতেও খুব কার্যকারী ভূমিকা পালন করেন। শরীরের সুস্থতা ও বিভিন্ন রোগ থেকে মুক্তি পেতে, প্রত্যহ রাতে দুধ পান করুন।

৫. আঁশযুক্ত খাবার

হজম শক্তি বৃদ্ধি করতে হয়, নিয়মিত খাদ্য তালিকায় আঁশযুক্ত খাবার বেশি রাখুন। আঁশযুক্ত খাবার অতি সহজে পানি শোষণ করে এবং হজম শক্তি বৃদ্ধি করে। আঁশযুক্ত খাবার শরীরের জন্য খুবই উপকারী।

৬. তেল, ঝাল, মশলাযুক্ত খাবার

অতিরিক্ত তেল জাতীয় খাবার শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকারক, শরীরকে সুস্থ রাখতে আপনাকে অবশ্যই মাত্রাতিরিক্ত তেল জাতীয় খাবার পরিহার করতে হবে। অতিরিক্ত তেল জাতীয় খাবার খেলে প্রথমত হজম শক্তি কমে যাবে। পেটে মেদ বৃদ্ধি পাবে। অনুরূপ অতিরিক্ত ঝাল ও মসলাযুক্ত খাবার খেলে এসিডিটি , হজম শক্তি কমে যাওয়াসহ নানা রকমের সমস্যায় পড়তে পারেন। সমস্ত খাবার পরিমিত আহার করুন।

৭. হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায় হলো দোয়া পড়ে খাওয়া

খাবার শুরুতে প্রথমে উভয় হাত ভালোভাবে পরিষ্কার করে নেবেন। খাবার শুরু করার পূর্বে এই দোয়া পড়বেন: 
بسم الله وعلى بركة الله
উচ্চারণ: বিসমিল্লাহি ওয়ালা বারকাতিল্লাহ
যদি খাবারের মাঝে মনে পড়ে যে, আপনি খাবারের পূর্বে দোয়া পড়তে ভুলে গিয়েছেন, তাহলে তৎক্ষণাৎ এই দোয়া পাঠ করুন: 
بسم الله اول هو و اخره

উচ্চারণ: বিসমিল্লাহি আওয়া লাহু ওয়া খিরহ 

খাবারের মাঝে মাঝে এই দোয়া পাঠ করুন: 
اللهم ربنا ولك الحمد
উচ্চারণ: আল্লাহুম্মা রব্বানা ওলাকাল হিমন্দ
খাবারের শেষে এই দোয়া পাঠ করুন:
الحمد لله الذي اطعمنا وثقان وجعلنا من المسلمين
উচ্চারণ: আলহামদুলিল্লাহ হিলল্লাযি আত‌ আমানা ওছাকনা ওজাআলানা মিনাল মুসলিমিন।
 যে ব্যক্তি খাবারের সময় এই দোয়া গুলো পাঠ করে খাবার খাবে, তার খাবার খাওয়ার সময়, অথবা খাওয়ার পরে অস্বস্তি বা অস্থিরতা অনুভব হবে না। কোন বদ হজম হবেনা ইনশাআল্লাহ।

পরিশেষে বলব : উপরে হজম শক্তি বৃদ্ধির উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। যদি আপনাদের লেখাটা ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন : 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

12 − 3 =