ফর্সা হওয়ার উপায় ৭টি

আপনি কি জানতে চান ফর্সা হওয়ার উপায় ? আল্লাহ সুবহানাল্লাহ আমাদেরকে যতগুলো মাধ্যম দিয়ে তৈরি সৃষ্টি করেছেন, প্রতিটি মাধ্যমই খুবই সুন্দর। সৌন্দর্য বর্ধন এর ক্ষেত্রে অন্যতম ভূমিকা প্রদর্শন করে এমন একটি মাধ্যম হল গায়ের রং।

যার গায়ের রং যত সুন্দর, মানুষ তার প্রতি বেশি আকৃষ্ট। কিন্তু সবাই তো আর সুন্দর গায়ের রং নিয়ে জন্ম নেয় না, তবে সকলের মনে একটি আকাঙ্ক্ষা থাকে বা প্রত্যাশা থাকে যে, সে সুন্দর হবে।

সেই আকাঙ্ক্ষা পূরণের লক্ষ্যে আমরা অনেকেই বিভিন্ন রকমের ক্রিম ব্যবহার করে থাকি, যাতে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ক্ষতিকারক রাসায়নিক দ্রব্য। যা আমাদের ত্বকের খুব ক্ষতি করে থাকে।

ফলে দেখা যায় ক্রিম ব্যবহার করার কারণে আপনার ত্বক ফর্সা হওয়ার পরিবর্তে ,কুৎসিত রূপ ধারণ করেছে। এরপর শুরু হয় হতাশা, চিন্তিত হওয়া। আজ আমি আলোচনা করব ঘরোয়া পদ্বতিতে ফর্সা হওয়ার উপায় সম্পর্কে ।

ফর্সা হওয়ার উপায়
ফর্সা হওয়ার উপায়

ফর্সা হওয়ার উপায় সমূহ :

৭টি উপায় বলা হবে । এই উপায়গুলোতে কোন ধরনের পার্শ প্রতিক্রিয়া নেই । সুতরাং আপনি নির্দ্বিধায় ব্যবহার করতে পারেন ।

১. টমেটো

শুরুতেই আলোচনা করব, যারা নিজেদের ত্বককে সুন্দর করার জন্য বিভিন্ন রকমের ক্রিম ব্যবহার করেছেন, কিন্তু ত্বক সুন্দর হওয়ার পরিবর্তে, কুৎসিত ,ভয়ঙ্কর, রূপ ধারণ করেছে।

হতাশায় ভুগছেন, কিভাবে এইতো দাগ দূর করবেন। তাদের জন্য এই টপিকটি খুবই উপকারী। আপনার চেহারা থেকে ব্রণের স্পট, বিভিন্ন রকমের গোটা দূর করতে টমেটো ব্যবহার করুন।

টমেটোতে রয়েছে এমন সব উপাদান, যা আপনার ত্বকের দাগ মিশিয়ে দিবে এবং পাশাপাশি মৃত কোষের স্পট সরিয়ে দেবে। ফলে ত্বক উজ্জল হয়ে উঠতে শুরু করবে। আপনার ত্বক থেকে ব্রণ, কিংবা ব্রণের স্পট দূর করতে টমেটো ব্যবহার করতে পারেন।

ব্যবহারবিধি:

প্রথমে একটা অথবা দুইটা টমেটো থেঁতো করে নিন, তার সঙ্গে দুই চামচ লেবুর রস মিশ্রিত করুন। এরপর উভয় টিকে একসঙ্গে ভালোভাবে মিশ্রিত করুন। ভালোভাবে পেস্ট করা হয়ে গেলে,

সেটিকে চোখের ওপর লাগিয়ে দিন এবং অর্ধ ঘণ্টা লাগিয়ে রাখুন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন, এতে আপনার ত্বকের দাগ মিশে যাবে। আপনি অতি সহজে ফর্সা হয়ে যেতে পারবেন।

২. এলোভেরা দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায়

অ্যালোভেরা খুব উপকারী একটি দ্রব্য। এটি আপনার এলার্জি, ব্রণ, ত্বককে সুন্দর করা ইত্যাদি ক্ষেত্রে খুবই কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

ব্যবহারবিধি:

ব্রণ দূর করার জন্য, এলোভেরা জেল ব্যবহার করুন, অথবা একটি অ্যালোভেরার পাতা । অ্যালোভেরা থেকে এক চামচ অথবা দুই চামচ এলোভেরা বের করে নিন, এরপর সেটিকে চেহারায় লাগিয়ে দিন। অর্ধ ঘণ্টা লাগিয়ে রাখুন।

এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। অতে সহজে আপনার চেহারা ব্রণ দূরীভূত হয়ে যাবে, আপনার ত্বক সুন্দর রুপ পাবে।

৩. লেবু দিয়ে রাতারাতি ফর্সা হওয়ার উপায়

লেবুর রস ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। লেবুর রস ত্বক থেকে জীবাণু দূর করে, তৈলাক্ত দূরীভূত করে, স্পট দূর করে, ত্বককে সুন্দর করে তুলে।

ব্যবহারবিধি:

প্রথমে লেবু থেকে রস নিংড়ে নিন, চেহারার পরিমাপ অনুপাতে যেন লেবুর রস টা হয়। তার সঙ্গে তিন চামচ বেসন, এক চামচ হলুদের গুঁড়ো, সামান্য পরিমাণে গোলাপ জল নিন‌।

এরপর সবগুলোকে একসঙ্গে ভালোভাবে পেস্ট করুন। এরপর মুখে লাগিয়ে দিন। 30 থেকে 40 মিনিট লাগিয়ে রাখুন। এরপর হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে আপনার চেহারাকে ধৌত করুন।

৪. কালো থেকে ফর্সা হওয়ার উপায় হলা মধু

মধু খুবই উপকারী একটি দ্রব্য। মধু ডিটক্সিফাই করে, মধু মুখের ময়েশ্চার ধরে রাখে। অতি সহজে ত্বক ফর্সা করার জন্য মধু ব্যবহার করতে পারেন।

ব্যবহারবিধি:

মুখের পরিমাপ অনুযায়ী, দুই চামচ মধু, তার সঙ্গে দুই চামচ লেবুর রস মিশ্রিত কারুন। এরপর উভয়টাকে একসঙ্গে ভালোভাবে পেস্ট করুন।

পেস্ট হয়ে গেলে সেটাকে চেহারায় লাগিয়ে দিন। অর্ধ ঘণ্টা লাগিয়ে রাখুন। এরপর হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। উপকারিতা পেতে সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার ব্যবহার করুন।

৫. কাঁচা হলুদ

কাঁচা হলুদ চেহারার সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য খুবই উপকারী। কাঁচা হলুদ রয়েছে এমন অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান যা আপনার চেহারা কোনো রুপ স্পোর্ট থাকতে দেবেনা। চেহারার পুরনো স্পর্ট দূর করার জন্য হলুদ ব্যবহার করতে পারেন।

ব্যবহারবিধি:

প্রথমে ভালোভাবে মুখ পরিষ্কার করে নিন, 1 থেকে 2 টি কাঁচা হলুদ নিন, সেগুলোর মাথা কেটে ফেলুন। এরপর একটি একটি করে চেহারায় ঘষতে থাকুন। একটি কথা শেষ হলে অপর একটি হলুদ দিয়ে ঘষুন। এরপর দীর্ঘ সময় এভাবে রেখে দিন। 40 থেকে 50 মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

৬. ফর্সা হওয়ার উপায় হলো শসা

শসা ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। শসা তে রয়েছে ভিটামিন A , D , এবং E . শসা আপনি খেতে পারেন, অথবা এর পেস্ট ব্যবহার করতে পারেন। ব্রণ দূর করার ক্ষেত্রে খুবই কার্যকারী ভূমিকা পালন করে।

ব্যবহারবিধি:

শসার ব্যবহার পদ্ধতি তিনটি:

এক নাম্বার: শসা খেতে পারেন।

দুই নাম্বার: শসা কে গোল গোল করে কেটে অর্ধ ঘন্টা পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এরপর ঐ পানি দিয়ে মুখ ধৌত করুন।

তিন নাম্বার: প্রথমে একটি শসা থেঁতো করুন, এরপর সেটাকে চেহারার ওপর লাগিয়ে দিন। অর্ধ ঘন্টা কিংবা তার চেয়ে বেশি সময় লাগিয়ে রাখুন।

এরপর ধুয়ে ফেলুন। অতি সহজে চেহারার ব্রণ দূর করতে, এবং আপনার ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে এই টিপসটি ফলো করতে পারেন।

৭. স্থায়ী ফর্সা হওয়ার উপায় হলো নির্দিষ্ট টিপসগুলো ফলো করা

এই টিপসগুলো আপনার চেহারায় ঝলক আনবে এবং রোদে পোড়া ভাব দূর করবে। আপনার ত্বককে অতি সহজে ফর্সা করতে চাইলে নিচের টিপস ফলো করতে পারেন।

  • এক টেবিল চামচ গুঁড়ো দুধ,
  • এক টেবিল চামচ মধু
  • এক টেবিল চামচ লেবুর রস
  • অর্ধ টেবিল-চামচ বাদামের তেল

সবগুলোকে একসঙ্গে ভালোভাবে মিশ্রিত করুন। এরপর সেটাকে আপনার ত্বকের ওপর লাগিয়ে দিন। অর্ধ ঘন্টা বা তার চেয়ে বেশি সময় লাগিয়ে রাখুন। এরপর ধুয়ে ফেলুন। উপকারিতা পেতে সাপ্তাহে দুই – তিন বার এই টিপসটি ফলো করুন।

পরিশেষে বলব : উপরে ফর্সা হওয়ার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। যদি আপনাদের লেখাটা ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন : 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

thirteen + five =