মন ভালো করার উপায় ১০টি

 আপনি কি জানতে চান মন ভালো করার উপায় ? আনন্দ আর বেদনা এই দুটি জিনিসের সমন্বয়ে সংঘটিত মানুষের জীবন। মন প্রফুল্ল থাকলে শরীর সুস্থ থাকে।

মন খারাপ হলে শরীরও অসুস্থ হয়ে যায়। অনুরূপ শরীর অসুস্থ হলে মনও কেমন যেন ভেঙ্গে পড়ে। শরীর সুস্থ থাকলে মন‌ও ভালো থাকে।এই দুটি জিনিস যেন পরস্পর বন্ধু। একজনের কিছু হলে অপরজন সহ্য করতে পারেনা।

সময় কিংবা তেমন কোনো বিশেষ কারণের এর প্রয়োজন বোধ হয় না মন খারাপ হতে। হঠাৎ- ই হয়ে যেতে পারে মন খারাপ। আর মন খারাপ হলে এর প্রতিক্রিয়া শুধু মনের উপরে পড়ে না ।

তার প্রতিক্রিয়া বিভিন্ন কাজ – কর্মে বা নিজের অনুভূতির ওপরেও পতিত হয়। যা ধীরে ধীরে শরীরের বিভিন্ন ক্ষতিও করে। তাই যত সম্ভব মন খারাপ না করে হাসিখুশি থাকার চেষ্টা করুন। আজ আমি মন ভালো করার উপায় বলবো। তা অবলম্বন করলে অতি সহজেই মন ভালো হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।

মন ভালো করার উপায়

মন ভালো করার উপায়

এখানে আমি প্রায় ১০ টি উপায় বলবো। আপনি যদি টিপসগুলো ফলো করেন । অতি সহজেই মন ভালো হয়ে যাবে ।

১. বিষন্ন মন ভালো করার উপায় হলো কোরআন তেলাওয়াত করা

সবচেয়ে দ্রুত ও সহজ পদ্ধতিতে মন ভালো করার সর্বাধিক উত্তম পন্থা হলো কোরআন তেলাওয়াত করা বা শ্রবণ করা। মন যতই খারাপ হোক না কেন, হোক না সেটা পাহাড় পরিমাণ।

আপনি ওজু করে কোরআন তেলোয়াত শুরু করে দিন ইনশাল্লাহ অল্প সময় আপনার মন ভালো হয়ে যাবে। যদি আপনি কোরআন তেলাওয়াত করতে সক্ষম না হয়ে থাকেন, তাহলে কোরআন তেলাওয়াত শুনুন।

ইউটিউবে অনেক সুন্দর সুন্দর কোরআন তেলাওয়াত পাওয়া যায়। যার কোরআন তেলাওয়াত আপনার শুনতে ভালো লাগে, চোখ বন্ধ করে কানে ইয়ারফোন লাগিয়ে সেই ব্যক্তির কোরআন তেলাওয়াত শুনুন।

ইনশাআল্লাহ মন ভালো হয়ে যাবে। এটি দুনিয়ার বুকে সবচেয়ে উত্তম পন্থা মন ভালো করার।

২. মন ভালো করার উপায় হলো যিকির করা

যদি খুব মন খারাপ থাকে, পবিত্র হয়ে মসজিদে প্রবেশ করুন, ওই সময় মসজিদে প্রবেশ করা সম্ভব না হলে, ঘরের এক কোনায় বা নির্জনে অবস্থান করুন।

মহিলা হলেও অনুরূপ ঘরের এক কোনায় নির্জনে অবস্থান করুন। এরপর জায়নামাজ বিছিয়ে যদি ওই ওয়াক্তের নামাজ না পড়ে থাকে নামাজ আদায় করুন।

এরপর জোর আসিন বা আসন দিয়ে বসে পড়ুন, সম্ভব হলে হাতে একটি তাসবিহ নিন, না হলে সমস্যা নেই।

এরপর চোখ বন্ধ করে মায়ার সহিত আল্লাহ আল্লাহ 100 বার, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ 100 বার , আস্তাগফিরুল্লাহ 100 বার, সুবাহানাল্লাহ একশতবার, আলহামদুলিল্লাহ 100 বার, আল্লাহু আকবার একশতবার জিকির করুন। ইনশাআল্লাহ অতি শীঘ্রই মনে প্রশান্তি তৈরি হবে।

৩. দান করা

যখন আপনার মন খুব খারাপ থাকবে, তখন আপনি আপনার আশেপাশের কোন দরিদ্র কে সাহায্য করুন। তাদেরকে কিছু টাকা দান করুন। তাদের অবস্থা জানার চেষ্টা করুন।

সম্ভব হলে তাদের সমস্যা দূরীভূত করুন। হাতে সময় সুযোগ থাকলে তাদেরকে নিয়ে কোন খাবারের দোকানে যান, সাধ্য অনুযায়ী তাদেরকে খাবার আহার করান।

খাবার আহার করানোর সময় তাদের খাদ্য গ্রহণের/খাওয়ার বাচনভঙ্গির প্রতি দৃষ্টিপাত করুন। এতে আপনার মন অনেক প্রশান্তি লাভ করবে।

৪. মন ভালো করার উপায় হলো মন খারাপ এর বিষয়টি দূরীভূত করা

যখন আপনার মন খারাপ হবে, তখন যে কারণে মন খারাপ হয়েছে, সেই কারণটি নিয়ে ভাবা বন্ধ করে দিন। নিজেকে অন্য কাজে ব্যস্ত রাখুন ,পাশাপাশি মন খারাপের বিষয়টি ভুলে থাকার চেষ্টা অব্যাহত রাখুন।

কারণ বিষয়টি নিয়ে আপনি যত চিন্তা করবেন আপনার কষ্ট ততই বাড়তে থাকবে। সৃজনশীল কোনো কাজকর্মে আপনার মনকে ব্যস্ত রাখুন। এছাড়া আপনার যা পছন্দ সেগুলো করতে থাকুন । এতে করে আপনার মন থেকে মন খারাপের প্রসঙ্গটি দূরীভূত হবে।

৫. প্রিয় মানুষের সঙ্গে কথা-বাত্রা

আপনার যখন খুব মন খারাপ লাগবে, তখন আপনার সবচেয়ে নিকটতম মানুষ বা প্রিয় বন্ধু কিংবা যার সঙ্গে কথা বললে আপনার মনে প্রশান্তি তৈরি হয়, এমন মানুষের সঙ্গে মন খারাপের বিষয়টি শেয়ার করুন।

কারণ কারো সঙ্গে দুঃখটা ভাগ করলে সেটা অর্ধেক হয়ে যায়। এছাড়া তার বা তাদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় কথা বাত্রা বলবেন। এতে আপনার মন অনেকটা হালকা হয়ে যাবে। পুনরায় প্রফুল্লতা ফিরে পাবেন।

৬. মন ভালো করার উপায় হলো ঘুরতে বের হওয়া

যখন আপনার মন খারাপ থাকবে, তখন ঘুরতে বের হন। এক জায়গায় বসে থাকলে মন ভালো হবে না। ঘর থেকে বেরিয়ে পড়ুন, মনোরম পরিবেশে হাঁটাহাঁটি করুন। প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখুন। কোন ফুলের বাগানে জান ইত্যাদি। এতে মন খুব দ্রুত ভালো হয়ে যাবে।

৭. নিঃশ্বাস গ্রহণ

যখন আপনার অনেক বেশি মন খারাপ থাকবে তখন আপনি বড় বড় করে নিঃশ্বাস গ্রহণ করুন এবং ধীরে ধীরে ছাড়ুন। এতে আপনার মস্তিষ্ক রিলাক্স হবে, পাশাপাশি মানসিক চাপ‌ও কমবে।

কারণ যখন আপনার অনেক বেশি মন খারাপ হয়, তখন সেটা আপনার মস্তিষ্কে অনেক বড় একটা চাপ ফেলে ,যা মানসিক অশান্তি বাড়াতে থাকে। আর এই জিনিষটি দূরীভূত না করলে মন ভালো হবে না।

৮. মন ভালো করার উপায় হলো ডাইরিতে লিপিবদ্ধ করা

যখন আপনার মন খুব খারাপ হয়, তখন যদি কাউকে না পান অথবা এমন কাউকে না পান যার কাছে আপনার মন খারাপের বিষয়টি উল্লেখ করবেন বা শেয়ার করবেন তখন আপনি আপনার মন খারাপের কারণ টি ডায়েরিতে লিপিবদ্ধ করতে পারেন। এতে আপনার মন অনেকটা হালকা হয়ে যাবে।

৯. বই পড়া

আপনার যখন মন খুব খারাপ থাকবে তখন বিভিন্ন উপন্যাস পড়ুন, সেটা হাসির‌ও উপন্যাস হতে পারে । বিভিন্ন বড় বড় মনীষীদের জীবনযাপনের উপন্যাস‌ও হতে পারে।

সময় সুযোগ পেলেই বিভিন্ন লাইব্রেরী বা পাঠাগার থেকে কিংবা বইয়ের মেলা থেকে বই সংগ্রহ করে রাখবেন। যাতে সেটা আপনার অবসর সময়ে বা আনন্দ কিংবা দুঃখের সময় যেন সঙ্গী হতে পারে।

১০. মন ভালো করার উপায় হলো মুচকি হাসা

হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সালাম এর সুন্নত সমূহের মধ্যে একটি সুন্নত হলো মুচকি হাসা। আপনার যখন মন খারাপ হবে তখন মুচকি হাসি বিনিময় করুন।

হা হা করে হাসি নয়, এটা শয়তানের হাসি। কথা বাত্রায় বা কারো সঙ্গে দেখা হলে বিভিন্ন কাজে ইত্যাদিতে মুচকি হাসি বিনিময় করুন। হাসি আপনার সব দুঃখ ভুলিয়ে দিতে পারে,

এছাড়া এটি রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। মন ভালো রাখার জন্য আপনি সর্বদা মুচকি হাসি দিতে পারেন। এতে যে কেউ আপনার প্রতি প্রভাবিত হতে পারে।

পরিশেষে বলব : উপরে মন ভালো করার উপায় সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। যদি আমার লেখা ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই জানাবেন। ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন : 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

2 × 3 =