সিপিএ মার্কেটিং কৌশল 2022 খুব সহজেই | সিপিএ মার্কেটিং কি ?

আপনি কি  সিপিএ মার্কেটিং করতে চান ? অনলাইনে ইনকাম করার অনেক মাধ্যম রয়েছে। তার মধ্যে এটা একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম।

অনেকে সফল হতে পারেনা সঠিক গাইডলাইন না পাওয়ার করণে এবং সঠিকভাবে কাজ না করার কারণে।অতএব আজ আমি  সিপিএ মার্কেটিং সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব ।

সিপিএ মার্কেটিং

সিপিএ মার্কেটিং

এখানে ইনকাম থেকে শুরু করে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করা হবে ।

সিপিএ মার্কেটিং কি ?

আপনার দেয়া লিঙ্কে ক্লিক করে যদি কোন ব্যক্তি নির্দিষ্ট কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করে তাহলে এর জন্য

কোম্পানি আপনাকে টাকা প্রদান করবে। তবে পদক্ষেপটা বিভিন্ন রকমের হতে পারে

  •  জিপ কোড সাবমিট করা
  • ইমেইল দেওয়া
  • কোন কিছু ডাউনলোড করা।

ইত্যাদি এরকম নানান কিছু করলে কোম্পানি আপনাকে টাকা প্রদান করবে।

মোটকথা: সিপিএ মার্কেটিং হল কোন কোম্পানির জন্য কাস্টমার নিয়ে আসা। এর জন্য কোম্পানি আপনাকে কিছু কমিশন দিবে।

এক্ষেত্রে ওই ব্যক্তি কোম্পানির প্রোডাক্ট কিনুক অথবা না কিনুক তবুও কমিশন দেওয়া হবে।

সিপিএ মার্কেটিং কৌশল

১/  আপনি কোন বিষয় নিয়ে কাজ করবেন এটা সর্বপ্রথম আপনাকে নির্ধারণ করতে হবে ।
আপনার ইচ্ছা , আপনি যেকোন বিষয় নিয়ে কাজ করতে পারেন। তারপর সুন্দর একটি কন্টেন্ট তৈরি করে আপনার লিংকটি ব্যবহার করুন।

তারপর নিজের ওয়েবসাইট বা যে কোনো জায়গায় আপনার কনটেন্ট পাবলিশ করুন। তারপর আপনি আপনার এই কনটেন্টটি সোশ্যাল মিডিয়া

অর্থাৎ ফেসবুক , টুইটার , ইনস্টাগ্রাম , ইউটিউব ইত্যাদি বিভিন্ন জায়গায় শেয়ার করুন।

২/  শুরু করার পূর্বে অবশ্যই আপনাকে সিপিএ নেটওয়ার্ক সম্পর্কে পরিপূর্ণ ধারণা নিতে হবে।

কেননা নেটওয়ার্ক সম্পর্কে যদি ভালো ধারণা না থাকে তাহলে আপনি মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে ব্যর্থ হবেন।

৩/ অবশ্যই আপনাকে কয়েকটি বিষয়ে ধারণা রাখতে হবে  মার্কেটিং শুরু করার পূর্বে

  1. কমিশন কত দিবে ?
  2. কোন দেশের ট্রাফিক নিয়ে আপনি কাজ করবেন।
  3. টাকা উঠানোর সিস্টেম কি ?
  4. টাকা কিভাবে প্রদান করে
  5. কয়দিন পরপর টাকা প্রদান করবে ?
  6. ইংরেজি সম্পর্কে ধারনা থাকতে হবে ।
  7. বাংলাদেশ থেকে একাউন্ট খোলা যায় কিনা ?
  8. বাংলাদেশ থেকে টাকা তোলার ব্যবস্থা আছে কিনা ?

৪/ সব সময় অনলাইন এক্টিভ থাকুন।
নতুন নতুন অফার মারকেটিং করুন। কেননা পুরনো অফারগুলো মার্কেটিং করলে মানুষ আপনার অফারে ক্লিক করবে না। ফলে আপনি সিপিএ মার্কেটিং এ ক্ষেত্রে ব্যর্থ হবেন।

৫/ বড় বড় মার্কেটপ্লেস গুলোতে অ্যাকাউন্ট খুলুন।
অ্যাকাউন্ট অ্যাপ্রুভ হওয়ার পর অফার সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন। তারপর গবেষণা করুন কোন সব অফার মানুষ বেশি ক্লিক করে।

পাশাপাশি কোন অফারের কমিশন বেশি। এগুলো প্রত্যেকটি কাজ অ্যাকাউন্ট অ্যাপ্রুভ হওয়ার পর গুরুত্বসহকারে করুন।এ

৬/  সিপিএ এর মধ্যে কিছু সাইট রয়েছে

যেখানে একাউন্ট খুলতে কোন সমস্যা হয় না। আবার কিছু  সাইট রয়েছে যেখানে একাউন্ট খুলতে অনেক ঝামেলা হয়।

তাই আপনাকে একাউন্ট খোলার সময় গুরুত্বসহকারে সঠিক তথ্য গুলো দিতে হবে। তবে কখনও বানানো তথ্য অথবা

অতিরঞ্জন কোন তথ্য দিবেন না। এক্ষেত্রে অনেক সময় অ্যাকাউন্ট অ্যাপ্রুভ হয়না।

৭/ অবশ্যই আপনাকে আপনার কাজের জন্য একটি ওয়েবসাইট বানিয়ে নেওয়া ভালো।
যদি ওয়েবসাইট না থাকে তাহলে সমস্যা নাই। তবে দ্রুত সফলতার জন্য আপনাকে অবশ্যই একটি ওয়েবসাইট বানাতে হবে।

৮/ হরেক রকমের কাজ রয়েছে এর মধ্যে

  • ফরম ফিলাপ করা
  • সাইন আপ করা
  • কোন কিছু ডাউনলোড করে ইন্সটল করা
  • কল অফার
  • ইমেইল জমা দেওয়া ।
  • কোন সার্ভে কমপ্লিট করা

ইত্যাদি এরকম নানান কাজ রয়েছে। ইমেইল মার্কেটিং অনেক গুরুত্বপূর্ণ। অর্থাৎ আপনি যাদেরকে টার্গেট করছেন

তাদেরকে ইমেইল করা অফার সম্পর্কে জানানোর জন্য। এটা বলা তারা ওই অফার গ্রহণ করতে আগ্রহী কিনা ?

৯ /  সোশ্যাল মার্কেটিং করা
দ্রুত সফল হওয়ার জন্য এবং নিজের ব্র্যান্ড তৈরি করার জন্য পাশাপাশি বিক্রয় বাড়ানোর জন্য অবশ্যই আপনাকে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং করতে হবে।

সিপিএ আয়

বর্তমান সময়ে অনলাইন থেকে ইনকাম করার অনেক মাধ্যম রয়েছে। তারমধ্যে অন্যতম মাধ্যম হলো এ মার্কেটিং।

এফিলিয়েট মার্কেটিং এবং গুগল এডসেন্স ইত্যাদি নানান মাধ্যম থেকে বেশি ভালো। প্রতিটি লিড কনভার্শন এর ক্ষেত্রে আপনার রায় 10 সেন্ট থেকে 10 ডলার আয় করতে পারবেন।

কয়েকটি সিপিএ সাইটের নাম দেয়া হলো

  1. cpagrop
  2. Clickbooth
  3. Crak Revenue
  4. Click Dealer
  5. CPA Lead
  6. Admitad
  7. CPAMatica
  8. Toro Advertising
  9. AdWork Media
  10. Advendor

এ সমস্ত সাইটগুলোতে আপনি প্রচুর পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। যে সমস্ত জায়গায় ট্রাফিক বেশি সেসব জায়গায় বেশি বেশি শেয়ার করবেন

তাহলে আপনার ইনকাম প্রচুর পরিমাণে বেড়ে যাবে। তবে এর জন্য আপনাকে প্রচুর পরিমাণ ধৈর্যধারণ করতে হবে।

এবং চুইংগামের মত লেগে থাকতে হবে। তাহলে আপনি দ্রুত সফল হবেন।

সিপিএ মার্কেটিং করতে যে সমস্ত বিষয় প্রয়োজন

  • একটি ল্যাপটপ অথবা ভালো ধরনের মোবাইল
  • ইন্টারনেট কানেকশন
  • সোশ্যাল মিডিয়ায় অবশ্যই আপনাকে একটি একাউন্ট থাকতে হবে। যেখানে প্রচুর পরিমাণ ট্রাফিক পাওয়া যাবে।
  • ইন্টারনেট সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা থাকতে হবে।

সর্বশেষ কথা হল : আশা করি আপনাদের সিপিএ মার্কেটিং সম্পর্কে ভালো করে বোঝাতে পেরেছি। কোন কিছু জানার থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।  ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন :-

  1. মেয়েদের ব্যবসার আইডিয়া
  2. অনলাইনে পণ্য বিক্রয় করে আয় করুন

Leave a Comment