কসমেটিকস পাইকারি বাজার কোন জায়গায় আছে ?এটা জানা সকলের জন্য দরকার

আপনি কি জানতে চান কসমেটিকস পাইকারি বাজার কোথায় ? কসমেটিকস পণ্যের চাহিদা অনেক বেশি আমরা সকলেই জানি।

যদি আমরা  পাইকারি মার্কেট গুলো থেকে কম দামে পণ্য ক্রয় করতে পারি তাহলে খুব সহজে অনেক পরিমাণে লাভ করতে পারব ‌।

আজ আমি এমন কিছু কসমেটিকস পাইকারি বাজার সম্পর্কে আলোচনা করব যেখান থেকে খুব কম মূল্যে  পণ্য ক্রয় করতে পারবেন।

কসমেটিকস পাইকারি বাজার

কসমেটিকস পাইকারি বাজার

নিউ মার্কেট

নিউ মার্কেটের মধ্যে নানান জিনিস পাইকারি ও খুচরা মূল্যে পাওয়া যায়।  কসমেটিকস পণ্য পাইকারি বিক্রির ক্ষেত্রে নিউ মার্কেট অনেক বিখ্যাত।

আর এটা মূলত ঢাকা কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর পাশে অবস্থিত।

অতএব পণ্য ক্রয় করার সময় অবশ্যই যাচাই-বাছাই করে ক্রয় করবেন এমন দামাদামি করে ক্রয় করবেন। নিউমার্কেটে পণ্যের মূল্য একটু বেশি।

কসমেটিকস পাইকারি বাজার হল চকবাজার

চক বাজার হলো বাংলাদেশের মধ্যে পাইকারি মার্কেট হিসেবে সবচেয়ে নামকরা একটি স্থান। বিশেষ করে কসমেটিকস পণ্য পাইকারি বিক্রয় এর  ক্ষেত্রে অনেক বিখ্যাত।

এখানে আপনি খুব অল্প দামে অর্থাৎ পাইকারি মূল্যে দেশি-বিদেশি নানান ধরনের  পণ্য পাবেন।। চকবাজার অবস্থিত পুরাতন ঢাকায়। ঢাকার নামকরা স্থান লালবাগ এর পাশে।

পণ্য কেনার সময় অবশ্যই যাচাই-বাছাই এবং দেখেশুনে ক্রয় করবেন।

ফার্মগেট

ফারামগেট অবস্থিত সংসদ ভবনের পাশে। ফারামগেট নানান ধরনের জিনিস পাইকারি এবং খুচরা বিক্রি করা হয়।

বিশেষ করে কসমেটিকস পণ্য পাইকারি এবং খুচরা হিসেবে বিক্রি করা হয়। অতএব আপনি এখান থেকে পাইকারি হিসেবে  পণ্য ক্রয় করতে পারবেন। কিনার সময় দেখেশুনে ক্রয় করবেন।

 গুলিস্থান

গুলিস্তান ঢাকার মধ্যে অনেক নামকরা একটি স্থান।এটি ঢাকার বায়তুল মোকাররমের পাশে অবস্থিত।

এখানে আপনি সকল ধরনের পণ্য পাবেন। পাইকারি এবং খুচরা হিসাবে। অতএব আপনি চাইলে এখান থেকেও পাইকারি হিসেবে কসমেটিকস পণ্য খুব অল্প মূল্যে ক্রয় করতে পারবেন।

তবে অবশ্যই সাবধানতার সাথে ক্রয় করবেন। কেননা গুলিস্তানে  বাটপার বেশি।

মিরপুর

মিরপুর থেকে আপনি নানান ধরনের কসমেটিকস পণ্য পাইকারি হিসেবে ক্রয় করতে পারবেন। এখানে দেশি এবং বিদেশি সব ধরনের কসমেটিক পণ্য পাওয়া যায়। তাই এখান থেকে অল্প মূল্যে  পণ্য ক্রয় করতে পারবেন।

মোহাম্মদপুর

মোহাম্মদপুর থেকেও আপনি নানান ধরনের পাইকারি পণ্য ক্রয় করতে পারবেন। বিশেষ করে কসমেটিকস পণ্য পাইকারি হিসেবে ক্রয় করতে পারবেন। এখানে পাইকারি ও খুচরা উভয় সিস্টেমে বিক্রি করা হয়। তাই আপনি মোহাম্মদপুর থেকে পণ্য ক্রয় করতে পারেন।

মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জের নানান ধরনের পণ্য পাওয়া যায়। এখানে পাইকারি ও খুচরা উভয় বিক্রি করা হয়। বিশেষ করে কসমেটিকস পণ্য পাইকারি হিসেবে বিক্রি করা হয়। তাই এখান থেকে আপনি  পণ্য ক্রয় করতে পারবেন। তবে অবশ্যই যাচাই-বাছাই করে দেখে শুনে ক্রয় করবেন।

 কসমেটিকস পাইকারি বাজার চট্টগ্রাম

ঢাকার মতো চট্টগ্রামে অনেক কসমেটিকস এর পাইকারি দোকান রয়েছে। এখানে একটি পাইকারি দোকানের নাম বলা হলো।

 রিয়াজউদ্দিন বাজার

রিয়াজউদ্দিন বাজার সকল পণ্যের ক্ষেত্রে অনেক নামকরা। অর্থাৎ এখানে নানা ধরনের জিনিস পাইকারি বিক্রি করা হয়।

বিশেষ করে কসমেটিকস পণ্যের ক্ষেত্রে অনেক বিখ্যাত। এখানে দেশী-বিদেশী সকল ধরনের উন্নত মানের পণ্য পাবেন।

অতএব আপনি ইচ্ছে করলে রিয়াজউদ্দিন বাজার থেকে পাইকারি দরে  পণ্য ক্রয় করতে পারেন।

আর রিয়াজউদ্দিন বাজার হল চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনের পাশেই অবস্থিত।

কসমেটিকস পাইকারি বাজার কলকাতা

আমাদের বাংলাদেশের মানুষ অধিকাংশই ইন্ডিয়ান প্রডাক্ট পছন্দ করে। এই কারণে ইন্ডিয়ার কয়েকটি পাইকারি দোকানের নাম বলা হল।

ক্যানিং স্ট্রিট

এই বাজার কসমেটিক্স পন্যের থেকে অনেক বিখ্যাত। আমাদের বাংলাদেশের অনেক ব্যবসায়ীরা এই বাজার থেকে পণ্য ক্রয় করেন।

আপনি ইচ্ছে করলে এই বাজার থেকে পাইকারি দরে পণ্য ক্রয় করতে পারেন। আর ক্যানিং স্ট্রিট মূলত হুগলি নদীর পাশে অবস্থিত।

বড় বাজার

এই বাজারও  অনেক নামকরা। এখানে সব ধরনের কসমেটিকস পণ্য পাওয়া যায় । এগুলো মানের দিক দিয়ে উন্নত মানের।

অতএব আপনি ইচ্ছা করলে এই বড় বাজার থেকে  পণ্য পাইকারি দরে ক্রয় করতে পারেন। অবশ্যই যাচাই-বাছাই করে দেখে শোনে ক্রয় করবেন । আর এটাও হুগলি নদীর পাশে অবস্থিত।

বর্তমান সময় অনলাইনের যুগ। অর্থাৎ অনলাইনে বর্তমান সময়ে কসমেটিকস এর পাইকারি দোকান রয়েছে। আপনি সেখান থেকে ঘরে বসে বসে পণ্য অর্ডার করতে পারবেন পাইকারি মূল্যে।

কসমেটিকস ব্যবসা

এখন আমরা আলোচনা করলাম কোথায় কোথায় থেকে  পণ্য পাইকারি দরে ক্রয় করতে পারবেন। এখন আমরা আলোচনা করব কিভাবে আপনি কসমেটিক ব্যবসা করতে পারেন।

আপনি যদি কসমেটিক ব্যবসায় ভালোভাবে সফল হতে চান তাহলে অবশ্যই কয়েকটি বিষয়ে ফলো করতে হবে আমি সেই বিষয়গুলো তুলে ধরব এখন।

১/ কসমেটিক মার্কেট সম্পর্কে ধারণা রাখতে হবে

২/ ব্যবসার জন্য নিখুঁতভাবে প্ল্যানিং করতে হবে

৩/ পণ্য নির্ধারণ করতে হবে

৪/ ভালো পজিশনে দোকান স্থাপন করুন

৫/ দোকানকে সুন্দরভাবে সাজান

৬/ ভালোভাবে মার্কেটিং করতে হবে

৭/ আপনার ব্যবসার জন্য বাজেট নির্ধারণ করুন

৮/ মানুষের সাথে ভালো ব্যবহার করুন

আপনি যদি কসমেটিক ব্যবসার ক্ষেত্রে এই সমস্ত বিষয়ে ফলো করেন তাহলে অবশ্যই খুব অল্প সময়ে সফলতা লাভ করতে পারবেন।

অবশ্যই ধৈর্যের সাথে নিষ্ঠাবান এর সাথে ব্যবসা করবেন।

পরিশেষে বলব : উপরে এতক্ষণ কসমেটিকস পাইকারি বাজার সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করলাম। পাশাপাশি কসমেটিকস ব্যবসা সম্পর্কে অল্প আইডিয়া দিলাম।

যদি এই টিপস গুলো আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই জানাবেন। এবং শেয়ার করবেন।

আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো : অবশ্যই যাচাই-বাছাই করে দেখে শোনে পণ্য ক্রয় করবেন ।

আরো পড়ুন :-

  1. অনলাইনে পণ্য বিক্রয় করে আয় করুন খুব সহজেই – ২০২১
  2. শেয়ার বাজার কিভাবে কাজ করে ?

Leave a Reply

Your email address will not be published.

sixteen + 2 =