ছাত্রদের জন্য ব্যবসা আইডিয়া ১৮টি যেগুলো খুবই লাভজনক

আপনি কি জানতে চান ছাত্রদের জন্য ব্যবসা বা  business ideas for students সম্পর্কে ? বর্তমানে অধিকাংশ ছাত্ররা লেখাপড়ার পাশাপাশি ব্যবসা করতে চায়। কিন্তু সঠিক  আইডিয়া না পাওয়ার কারণে ব্যবসায় সফল হতে পারে না অথবা সঠিকভাবে ব্যবসা করতে পারে না।

আজ আমি এমন কিছু ইউনিক আইডিয়া দেবো ও ছাত্র জীবনে সফল হওয়ার উপায় বলব  যা ছাত্রদের জন্য ব্যবসা করা খুবই সহজ হবে এবং দ্রুত সফলতা অর্জন করতে পারবেন।

Table of Contents

ছাত্রদের জন্য ব্যবসা ২০২২

আমি এখানে প্রায় ১৮টি মাধ্যম বলব যেগুলো প্রত্যেকটি প্রশিদ্ধ । এগুলো ফলো করলে ১০০% ইনকাম করতে পারবেন।

১/ ছাত্রদের ব্যবসা হলো অনলাইনে ই-কমার্স ব্যবসা

বর্তমান সময় মানুষ অনলাইনে প্রতি বেশি ঝুঁকছে। তারা অনলাইনে শপিং করতে পছন্দ করে। কেননা অনলাইন থেকে পণ্য কেনার অনেক সুবিধা রয়েছে। যেমন :

  1. বাড়িতে বসেই অর্ডার করতে পারা ।
  2.  অনলাইনের প্রোডাক্ট এর মূল্য তুলনামূলক কম সরাসরি পণ্য ক্রয় করা থেকে।
  3. পণ্য পছন্দ না হলে ফেরত দেওয়ার সুযোগ রয়েছে।

ইত্যাদি এরকম নানান ধরনের সুবিধা থাকার কারণে বর্তমানে মানুষ অনলাইনের প্রতি বেশী ঝুঁকছে। তাই আপনি অনলাইনে একটি ই কমার্স সাইট তৈরি করে বিভিন্ন প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারেন।

ই-কমার্স ব্যবসায় সফলতা লাভ করার জন্য অবশ্যই আপনাকে কয়েকটি বিষয় ফলো করতে হবে :

  • ঐ সমস্ত প্রোডাক্ট বাছাই করবেন যেগুলো মানুষের কাছে চাহিদা বেশি। তাহলে আপনি অল্প সময়ে সফলতা লাভ করতে পারবেন। এজন্য অবশ্যই আপনাকে মার্কেট নিয়ে গবেষণা করতে হবে।
  • প্রডাক্ট নির্বাচন করার পর যে সমস্ত জায়গায় ওই প্রোডাক্টটা কম দামে পাওয়া যায় ঐ সমস্ত জায়গায় নির্বাচন করুন এবং তাদের সাথে কথা বলে চুক্তি করুন। কেননা ই-কমার্স ব্যবসায় প্রতিযোগিতা বেশি তাই সবাই কম দিতে চায় । যদি আপনি কমদামে না ক্রয় করেন। তাহলে সমস্যায় পড়ে যাবেন । কেননা এক্ষেত্রে আপনি কম দামে বিক্রি করতে পারবেন না।
  • উন্নত মানের প্রোডাক্ট বিক্রি করার চেষ্টা করুন। কেননা উন্নত মানের প্রোডাক্ট না হলে ক্রেতা আপনার কাছে দ্বিতীয় বার পণ্য কিনতে আগ্রহ বোধ করবে না।
  •  গ্রাহকদের সাথে ভালো ব্যবহার করুন। এটা ব্যবসায় সফল হওয়ার ক্ষেত্রে অনেক বড় ভূমিকা রাখে।
  • ডেলিভারি কিভাবে দিবেন তা নিয়ে চিন্তা ফিকির করুন।
  • ভালো পরিমাণে মার্কেটিং করুন। এটা ব্যবসায় সফল হওয়ার ক্ষেত্রে অনেক বড় ভূমিকা রাখে। মার্কেটিং আপনি ফেসবুক ইত্যাদির মাধ্যমে করতে পারেন।

অবশ্যই খুব সহজে ই-কমার্স ব্যবসায় সফলতা লাভ করতে পারবেন এই সমস্ত বিষয় যদি আপনি ফলো করেন তাহলে  ।

ছাত্রদের জন্য ব্যবসা

২/ ছাত্রদের জন্য ব্যবসা হিসেবে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট এর ব্যবসা

বর্তমানে বিভিন্ন জায়গায় অনুষ্ঠান হয়।  বিশেষ করে জন্মদিন, বিবাহ অনুষ্ঠান , বিবাহ বার্ষিকী ইত্যাদি এরকম নানান অনুষ্ঠান হয়।  আপনি অনুষ্ঠানের কাজ এর দায়িত্ব নিতে পারেন।

এ কাজের অনেক চাহিদা রয়েছে। কেননা প্রত্যেকটা মানুষই বর্তমানে এসব ক্ষেত্রে অনুষ্ঠান করতে পছন্দ করে। আপনি তাদের এই সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেন।

অবশ্যই আপনাকে কয়েকটি কাজ করতে হবে এই ব্যবসায় সফলতা লাভ করার জন্য ।

  •  ভালোভাবে মার্কেটিং করতে হবে। যাতে করে মানুষ বুঝে যে আপনি এই কাজ করেন।
  •  সুন্দরভাবে পরিচালনা করতে হবে কোন ধরনের প্রবলেম ছাড়া। যাতে করে কমতি না থাকে।
  •  অনুষ্ঠানে আসা প্রত্যেকটি মানুষের সাথে ভালো ব্যবহার করতে হবে।
  •  ছোট থেকে ছোট বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবে।
  •  অনুষ্ঠানের জায়গাটা চমৎকার ভাবে সাজাতে হবে যাতে করে মানুষ প্রশংসা করে এবং স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে।

আপনি যদি এই বিষয়গুলো খেয়াল রাখে তাহলে অবশ্যই এই ব্যবসায় ক্ষেত্রে সফলতা লাভ করবেন।

অতএব আপনি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট এর দায়িত্ব নিয়ে ব্যবসা করতে পারেন লেখাপড়ার পাশাপাশি। এটা ছাত্রদের জন্য ব্যবসা । এ ব্যবসায় ইনকাম অনেক বেশি।

৩/  ছাত্র জীবনে ব্যবসা হলো ফেসবুকে ব্যবসা

অর্থাৎ বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় সোসাল প্লাটফর্ম হচ্ছে  ফেসবুক। কেননা ছোট থেকে বড় , গ্রাম থেকে শহর সকলেই ফেসবুক ব্যবহার করে।

অনেকেই এ সুযোগটা কাজে লাগিয়ে ফেসবুকে ব্যবসা করছে। অতএব আপনিও নির্দিষ্ট কোনো পণ্য ফেসবুক বিজনেস পেজ এর মাধ্যমে বিক্রি করতে পারেন।

ফেসবুকে ব্যবসায় সফল করার জন্য আপনাকে ভালোভাবে মার্কেটিং করতে হবে। আপনি ফ্রিতে মার্কেটিং করতে পারেন অথবা টাকা খরচ করে মার্কেটিং করতে পারে।

ফ্রিতে মার্কেটিং করার জন্য আপনার অনেক ফলোয়ার থাকতে হবে। অথবা বিভিন্ন গ্রুপে গ্রুপে আপনার প্রোডাক্টের প্রচারণা চালাতে হবে।

টাকা খরচ করে মার্কেটিং অর্থাৎ আপনি যদি ফেসবুকে টাকা দেন তাহলে ফেসবুক আপনার প্রোডাক্ট লোকদের কাছে পৌঁছে দিবে।

আপনি মার্কেটিং যে কোন সিস্টেমে করেন না কেন। শর্ত হলো ভালোভাবে মার্কেটিং করতে হবে ফেসবুক ব্যবসায় সফলতা লাভ করার জন্য।

যদি মার্কেটিং করেন তাহলে  খুব সহজেই আপনি সফলতা অর্জন করতে পারবেন। একটু ধৈর্য ধারণ করতে হবে পাশাপাশি লেগে থাকতে হবে।

আরো পড়ুন :- ফেসবুক মার্কেটিং করে ঘরে বসে অনলাইনে আয়

৪/ ছাত্র জীবনে ব্যবসা হলো ছবি বিক্রি করে ব্যবসা

ছাত্রদের জন্য ব্যবসা

আপনি যদি ছবি তুলতে পছন্দ করেন। তাহলে আপনার এই পছন্দকে কাজে লাগিয়ে ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারেন। 

তবে সফলতা লাভ করার জন্য অবশ্যই আপনাকে ভালো মানের ছবি তুলতে হবে। যদি ভালো ছবি তুলতে পারেন তাহলে তো ভালো।

অন্যথায় বিভিন্ন কোর্স রয়েছে যেখানে ছবি তোলার খুঁটিনাটি বিষয়গুলো আলোচনা করা হয় । এখান থেকে আপনি অভিজ্ঞতা লাভ করতে পারেন।

ছবি তুলে দুই ভাবে ইনকাম করতে পারেন।

এক. বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ছবি তুলে। অর্থাৎ বর্তমানে বিয়ে বাড়ি, জন্মদিন ইত্যাদি এরকম অনুষ্ঠানে ফটোগ্রাফার ভাড়া করা হয় যারা পুরো অনুষ্ঠানের ছবি তুলবে বা ভিডিও করবে।

বর্তমানে এর চাহিদা দ্বিগুণ বেড়ে গিয়েছে। এখান থেকে আপনি প্রচুর পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আর এখান থেকে ইনকাম করার জন্য অবশ্যই আপনাকে কিছু মার্কেটিং করতে হবে যাতে করে আপনি সকলের মাঝে পরিচিতি লাভ করেন। ফলে আপনাকে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে হায়ার করবে।

দুই . চমৎকার চমৎকার ছবি তুলে অনলাইনে বিক্রি করতে পারেন। অনলাইনে অনেক কোম্পানি রয়েছে যারা ছবি ক্রয় করে তাদের কাছে বিক্রি করে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কয়েকটি ওয়েব সাইটের নাম দেওয়া হল :

  1. bigstockphoto.com
  2. Adobe Stock
  3. shutterstock.com
  4. fotolia.com
  5. alamy.com

ইত্যাদি এরকম আরো কোম্পানি রয়েছে যারা ছবি ক্রয় করে থাকে।  এ ব্যবসার  অনেক চমৎকার। এর চাহিদা বর্তমানে অনেক বেশি।

৫/ ছাত্রদের জন্য ব্যবসা হলো অনলাইনে কোর্স বিক্রি করে ব্যবসা

আপনি যদি কোন বিষয়ে পারদর্শী থাকেন। তাহলে ওই বিষয়ে  লেকচার তৈরি করে অনলাইনে কোর্স হিসেবে বিক্রি করতে পারবেন।

বর্তমানে এর চাহিদা অনেক বেশি। তাই অল্প সময়ে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তবে এমন বিষয়ে কোর্স তৈরি করবেন যে বিষয়ে মানুষের আগ্রহ আছে। তাহলে খুব দ্রুত সফলতা অর্জন করতে পারবেন।

নিজে নিজেই কোর্স বিক্রি করতে পারেন। অথবা

কোর্স বিক্রি করার কয়েকটি ওয়েবসাইটের নাম দিচ্ছি :

৬/ কাউকে পড়ানো হলো ছাত্র জীবনে ব্যবসা

এই সিস্টেমটা অনেক আগে থেকে আসতেছে। বর্তমানে অনেক লোকই পড়ালেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ছাত্র-ছাত্রীদেরকে পড়ায়।

এ ক্ষেত্রে আপনার নিজের অভিজ্ঞতা বাড়বে পাশাপাশি ব্যবসা হিসেবে টাকাও ইনকাম করতে পারবেন।

আপনি দুইভাবে পড়াতে পারেন।

১/ সরাসরি কোন ছাত্রকে পড়াবেন।

২/ অনলাইনে ছাত্রদেরকে পড়াবেন। বর্তমানে এর চাহিদা অনেক বেড়ে গিয়েছে। আপনি যে বিষয়ে অভিজ্ঞ সে বিষয়ে পড়ালে বেশি তাড়াতাড়ি সফলতা লাভ করবেন। এটা ছাত্রদের জন্য ব্যবসা

৭/ ছাত্র জীবনে আয় করার উপায় হলো  বই বিক্রয়ের ব্যবসা

লেখাপড়ার পাশাপাশি আপনি বই বিক্রি করতে পারেন। বই বিক্রির ব্যবসা অনেক লাভজনক। পাশাপাশি অনেক সম্মানজনক।

তাই আপনি যেখানে পড়ালেখা করেন সেখানেও বই বিক্রি করতে পারেন অথবা যেকোন স্থানে বই বিক্রি করতে পারেন। এটা আপনার ইচ্ছা।

৮/  পড়ালেখার পাশাপাশি আয় হলো পোশাক ডিজাইন এর ব্যবসা

আপনি যদি পোশাক ডিজাইন এর ক্ষেত্রে পারদর্শী হন। তাহলে আপনি ডিজাইনের ব্যবসা করতে পারেন।

অর্থাৎ  বিভিন্ন পোশাক কোম্পানির কাছে অথবা বুটিকসে বিক্রি করতে পারেন আপনার ডিজাইনটি। এ ব্যবসায় অনেক লাভ আছে।

৯/ ছাত্রদের জন্য ব্যবসা হলো ড্রপ শিপিং এর ব্যবসা

ছাত্রদের জন্য ব্যবসা

আপনি পড়ালেখার পাশাপাশি অনলাইনে ড্রপ শিপিং এর ব্যবসা করতে পারেন। এই ব্যবসায় পুঁজি একেবারে কম লাগে।

ড্রপ শিপিং কি ?  ড্রপ শিপিং হলো এমন একটি ব্যবসা যে ব্যবসায় কোন পণ্য ডেলিভারি দিতে হয়না এবং কোন পণ্য ক্রয় করতে হয়না।

বরং আপনি শুধু অর্ডার গ্রহণ করে আপনার পার্টনার কোম্পানির কাছে দিয়ে দিবেন। তারপর তারা সবকিছুই করবে।

আর আপনি মাঝখান থেকে ইনকাম করতে পারবেন। তবে এর জন্য আপনাকে একটি ওয়েবসাইট বানাতে হবে এবং মার্কেটিং করতে হবে। এ ব্যবসায় লাভ অনেক বেশি।

১০/  মোবাইল ঠিক করার ব্যবসা হলো ছাত্রদের জন্য ব্যবসা

আপনি পড়ালেখার পাশাপাশি মোবাইল ফোন ঠিক করার দোকান দিতে পারেন । এ ব্যবসার অনেক চাহিদা রয়েছে।

কারণ বর্তমানে সবার হাতে মোবাইল রয়েছে। একটি না একটি সমস্যা হয় মোবাইলে। তাই আপনি মোবাইল  ঠিক করার দোকান দিয়ে এই ব্যবসাটা শুরু করতে পারেন।

এ ব্যবসায়ও অনেক লাভ  রয়েছে। এজন্য আপনি চার থেকে পাঁচ মাস মোবাইল ফোন ঠিক করার কোর্স করতে পারেন।

ফলে এ ব্যাপারে আপনি অভিজ্ঞ হয়ে যাবেন। আর অভিজ্ঞ লোকের চাহিদা বেশি। তাই সময় নষ্ট না করে এ ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

১১/ ট্রাভেল এজেন্ট এর ব্যবসা হলো ছাত্রদের জন্য ব্যবসা

বর্তমানে সবাই ভ্রমণ করতে পছন্দ করে। ভ্রমণের ওপর বিশেষ করে ছাত্র-ছাত্রীদের আগ্রহ বেশি থাকে।

অতএব আপনি স্কুল-কলেজের বন্ধকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন চমৎকার চমৎকার জায়গায় ভ্রমণ করানের জন্য নিয়ে যেতে পারেন।

এইভাবে আপনি ছাত্র হিসেবে ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এ ব্যবসাটি অনেক চমৎকার।

১২/ ইউটিউব চ্যানেল খুলে ছাত্রদের জন্য ব্যবসা

ধীরে ধীরে প্রত্যেকটা মানুষই ইউটিউব এর দিকে বেশি ঝুঁকছে। অতএব ইউটিউব এর প্রতি প্রচুর চাহিদা রয়েছে।

আপনি যদি ইচ্ছা করেন তাহলে ইউটিউব এর মধ্যে বিভিন্ন রকমের ভিডিও বানিয়ে ব্যবসা করতে পারেন অথবা বিভিন্ন রকম প্রডাক্ট এফিলিয়েট মার্কেটিং হিসেবে বিক্রি করে ভালো ইনকাম করতে পারবেন।

১৩/ ছাত্রদের জন্য ব্যবসা হলো  ক্রাফটিং এর ব্যবসা

ছাত্রদের জন্য ব্যবসা

মানুষ কাগজের তৈরি জিনিসপত্র পছন্দ করে ‌। বিশেষ করে বিয়ের অনুষ্ঠান , জন্মদিন আরো নানান অনুষ্ঠানে এর চাহিদা অনেক বেশি।

কাগজের তৈরি জিনিসপত্র সহজে পাওয়া যায় না ‌। তাই এর চাহিদা অনেক বেশি। ছাত্রদের জন্য ব্যবসা হিসেবে এটা অনেক চমৎকার।

একমাত্র ছাত্ররাই পারবে খুব সহজে এই ব্যবসাটি করতে। অতএব আপনি যদি ছাত্র হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য এই ব্যবসাটি বেছে নিতে পারেন।

১৪/ শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যবসা হলো খাবারের দোকান

স্কুলের পাশে অথবা যেকোনো স্থানে লেখাপড়ার পাশাপাশি খাবারের দোকান দিয়ে ব্যবসা করতে  পারেন।

যেখানে  অল্প পরিসরে খাবার-দাবার বিক্রি করা হবে। যাতে করে লেখাপড়ায় ডিসটাব না হয়।

আরেকটি বিষয় অবশ্যই ভাল মানের খাবার তৈরি করতে হবে। তাহলে ব্যবসার চাহিদা বৃদ্ধি পাবে।

১৫/ ডেলিভারি ম্যানের ব্যবসা হলো ছাত্রদের জন্য ব্যবসা 

বর্তমান সময়ে নতুন নতুন অনেক কোম্পানি তৈরি হচ্ছে যারা বিভিন্ন ধরনের পণ্য ডেলিভারি দিয়ে থাকে।

অতএব আপনি লেখাপড়ার পাশাপাশি পার্টটাইম জব হিসেবে এই কাজ করতে পারেন। এই ব্যবসার অনেক চাহিদা রয়েছে।

এখান থেকে অনেক ইনকাম করা যায়। অতএব আপনি ইচ্ছা করলে পার্ট টাইম জব হিসেবে এই কাজ করতে পারেন।

১৬/ এফিলিয়েট মার্কেটিং করে ছাত্রদের জন্য ব্যবসা

এটা ছাত্রদের জন্য অনেক সহজ এবং লাভজনক একটি ব্যবসা। এই ব্যবসাটি করতে গেলে কোন ধরনের পুজি লাগে না।

শুধু আপনি প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে কোন কোম্পানির প্রোডাক্ট বা সার্ভিস বিক্রি করে দিবেন এর ফল আপনাকে কমিশন দেবে।

আর এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মধ্যে সফলতা অর্জন করার জন্য সবচেয়ে যে জিনিসটা লাগবে সেটা হল মার্কেটিং।

আপনার মার্কেটিং ব্যাপারে ভালোভাবে ধারণা থাকতে হবে। যদি আপনি মার্কেটিং না পারেন তাহলে সমস্যা নাই বর্তমানে বিভিন্ন ইউটিউবে ভিডিও রয়েছে সেগুলো দেখে মার্কেটিং শিখতে পারেন।

অথবা কোন পেইড কোর্স থেকে মার্কেটিং শিখতে পারেন। আপনি যদি মার্কেটিং ভালোভাবে পারেন তাহলে এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে খুব সহজেই অল্প সময়ে সফলতা লাভ করতে পারবেন।

এ ব্যাপারে আরো বিস্তারিত জানতে নিচের আর্টিকেলটি পড়তে পারেন।

আরো পড়ুন : এফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে শুরু করবো ২০২২ ?

১৭/ লেখালিখি করে ব্যবসা করতে পারেন

যদি আপনি লেখালেখি পছন্দ করেন তাহলে আপনি আপনার এই পছন্দকে কাজে লাগাতে পারেন। আর

আপনি বিনা পুঁজিতে এই ব্যবসাটি করতে পারেন। এখান থেকে আপনি খুব সহজেই প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন। রাইটিংদুই ভাগে করতে পারেন।

এক.  নিজে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে লেখালেখি করে ইনকাম করতে পারেন নানা উপায়ে যেমন গুগল এডসেন্স , এফিলিয়েট মার্কেটিং ইত্যাদি।

দুই.  বড় বড় ওয়েবসাইটে লেখালিখি করতে পারেন।

এ ব্যাপারে আরো বিস্তারিত জানতে নিচের আর্টিকেলটি পড়তে পারেন।

আরো পড়ুন : ব্লগ তৈরি করার নিয়ম ২০২২ খুব সহজেই

১৮/ মোবাইল রিচার্জ এর ব্যবসা হলো ছাত্রদের জন্য ব্যবসা 

প্রত্যেকটা মানুষই মোবাইলে রিচার্জ করে। তাই এ ব্যবসায় ও অনেক চাহিদাও রয়েছে। পড়ালেখার পাশাপাশি আপনি এই ব্যবসা করতে পারেন।

এ ব্যবসায় সফলতা লাভ করার জন্য আপনাকে অবশ্যই ভালো একটি জায়গা বাছাই করতে হবে।

অর্থাৎ এমন একটি জায়গা বাছাই করবেন যেখানে লোকের সমাগম বেশি। তাহলে আপনি এই ব্যবসায় সফলতা লাভ করতে পারবেন খুব দ্রুত।

একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো : এ ব্যবসায় পুঁজি একদম কম লাগে। তাই খুব সহজেই করা যায়। এ ব্যবসা করার জন্য সরাসরি আপনি দোকান দিতে পারেন। পাশাপাশি অনলাইনে বিভিন্ন অফার দিয়ে রিচার্জ এর ব্যবসা করতে পারেন।

পরিশেষে বলব : উপরে উল্লেখিত ছাত্রদের জন্য ব্যবসা  সম্পর্কে যদি একটুও ভালো লাগে এবং কোন উপকারে আসে তাহলে অবশ্যই জানাবেন। ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন :-

  1. অনলাইনে পণ্য বিক্রয় করে আয় করুন খুব সহজেই – ২০২১
  2. শেয়ার বাজার কিভাবে কাজ করে ?

ছাত্রদের জন্য কোন ব্যবসাটি বেশি লাভজনক ?

কয়েকটি ব্যবসা রয়েছে যেগুলো ছাত্রদের জন্য বেশি লাভজনক।
১/ ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট এর ব্যবসা। এটা খুবই লাভজনক। খুব দ্রুত সফলতা লাভ করা যায়।
২/ ছবি বিক্রি করে ব্যবসা। এই ব্যবসাটি অনেক সহজ।
৩/ ফেসবুকে ব্যবসা করা। বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যবসা।
৪/ ডেলিভারি ম্যান এর ব্যবসা।
৫/ অনলাইনে ই-কমার্স ব্যবসা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

3 × 2 =