আপনি কি জানতে চান ডোমেইন কি ? ডোমেইন সম্পর্কে জানা অনেক জরুরী। কেননা প্রত্যেকটি ওয়েবসাইটের জন্য ডোমেইন প্রয়োজন হয়। আজ আমি ডোমেইন সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব।

আর্টিকেল এর সূচি

১/ ডোমেইন কি ?

২/ ডোমেইন নেম কেন ব্যবহার করা হয় ?

৩/ ডোমেইন কত প্রকার ?

8/ সাব ডোমেইন কি ?

৫/ ডোমেইন কিভাবে কিনব ?

ডোমেইন নেম কি ?

ডোমেইন হচ্ছে একটি ওয়েবসাইটের ঠিকানা। এই ঠিকানা দিয়ে ইন্টারনেটের মাধ্যমে আমরা নির্দিষ্ট কোনো  ওয়েবসাইট খুঁজে পাই। একটি ওয়েবসাইটের ডোমেইন নেম আরেকটি ওয়েবসাইটের ডোমেইন নেমের সাথে কখনো মিলবে না।

কেননা প্রত্যেকটি ওয়েবসাইটের জন্য আলাদা আলাদা ডোমেইন নেম রয়েছে। মোটকথা ডোমেইন হল কোন একটি ওয়েবসাইটের নামকে বুঝায়। যেমন : muktosomudro.com এটি একটি ডোমেইন নেম।

ডোমেইন নেম কেন ব্যবহার করা হয় ?

প্রত্যেকটি ওয়েবসাইটের জন্য আলাদা আলাদা ভাবে IP address রয়েছে। এই আইপি অ্যাড্রেস লিখে সার্চ দিলেও আপনি আপনার ওয়েবসাইটকে খুঁজে পাবেন। তবে এ আইপি অ্যাড্রেস মুখস্ত রাখা কঠিন।

কারণ এই আইপি অ্যাড্রেস এর মধ্যে ১২২.১০৩.২০.২৬০ এরকম সংখ্যা থাকে। কিন্তু ডোমেইন নেম মুখস্ত রাখা সহজ। তাই সবাই এই আইপি অ্যাড্রেস এর পরিবর্তে ডোমেইন নেম ব্যবহার করে।

আশাকরি এতোটুকু আলোচনায় আপনারা বুঝে গেছেন ডোমেইন নেম কি ? ডোমেইন নেম কেন ব্যবহার করা হয় ?

ডোমেইন কত প্রকার ?

ডোমেইন অনেক প্রকার। এখানে আমি কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ডোমেইন নিয়ে আলোচনা করব।

  1. টপ লেভেল ডোমেইন
  2. কান্ট্রি কোড টপ লেভেল ডোমেইন
  3. নিউ টপ লেভেল ডোমেইন
  4. সাব ডোমেইন কি

টপ লেভেল ডোমেইন কি ?

এই টপ-লেভেল ডোমেইন অধিকাংশ লোকে ব্যবহার করে। এই হিসেবে বহুল প্রচলিত একটি ডোমেইন হল টপ লেভেল ডোমেইন। পাশাপাশি গুগল সার্চ ইঞ্জিনেও এই ডোমেইনকে অনেক বেশি গুরুত্ব দেয়। অতএব এই টপ-লেভেল ডোমেইন ব্যবহার করাই উত্তম।যেমন :

১/ .com এটা কমার্শিয়াল কোম্পানির ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়
 
২/ .info এটা তথ্য যুক্ত ব্লগের ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়
 
৩/ .net এটা পার্সোনাল ব্লগ এর ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়
 
৪/ .edu এটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়
 
৫/ .gov এটা সরকারি প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়
 
৬/ .org এটা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়
 
৭/ .mil এটা সামরিক বাহিনীর ক্ষেত্রে ব্যবহার হয়
 

২/ কান্ট্রি কোড টপ লেভেল ডোমেইন কি ?

এই ডোমেইন মূলত কোন দেশকে টার্গেট করে রাখা হয়। অর্থাৎ কোন ওয়েবসাইট যদি কোন দেশকে টার্গেট করে বানানো হয় সে ক্ষেত্রে এই ধরনের ডোমেইন নেম রাখা হয়। যেমন :
 
১/ .in এটা ইন্ডিয়ার ক্ষেত্রে রাখা হয়
 
২/ .us এটা আমেরিকার ক্ষেত্রে রাখা হয়
 
৩/ .bd এটা বাংলাদেশের ক্ষেত্রে রাখা হয়
 
৪/ .br এটা ব্রাজিলের ক্ষেত্রে রাখা হয়
 
৫/ .cn এটা চীনের ক্ষেত্রে রাখা হয়
 
৬/ .Ro এটা রোমানিয়ার ক্ষেত্রে রাখা হয়
 
৭/ .ca এটা ক্যানাডার ক্ষেত্রে রাখা হয়
 
৮/  .sg এটা সিঙ্গাপুরের ক্ষেত্রে রাখা হয়
 

৩/ নিউ টপ লেভেল ডোমেইন

অর্থাৎ বর্তমানে ব্যবহারকারীদের সুবিধার্থে নতুন কিছু ডোমেইন নেম এসেছে। ফলে ব্যবহারকারীরা বুঝতে পারবে আপনার ওয়েবসাইটটি কিসের উপর। এটা মূলত আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী রাখতে পারবেন।

 
1/ .club
 
2/ .shop
 
3/ .dance
 
4/ .cafe
 
5/ .academy
 
6/ .yoga
 
7/ .accountant
 
8/ .health
 
9/ . design
 
10/ .cat
 
 
 

 ৪/ সাব ডোমেইন কি ?

সাব ডোমেইন মূলত টপ লেভেল ডোমেইনের শাখা। অর্থাৎ এই সাব ডোমেইন এর নিজস্ব কোন অস্তিত্ব নেই বরং সে কোন টপ লেভেল ডোমেইন এর আন্ডারে অস্তিত্বে আসে। তবে সাবডোমেইন এর জন্য কোন টাকা পয়সা খরচ করতে হয় না। বরং এগুলোর ফ্রিতে পাওয়া যায়। যেমন : Dhaka.blogspot.com

সাব ডোমেইন এর সুবিধা কি ?

সাব ডোমেন এর অনেক সুবিধা রয়েছে। কয়েকটি সুবিধা দেওয়া হল :

 
 ১/ সাব ডোমেইন এর মধ্যে আপনার ইচ্ছামত টেমপ্লেট ব্যবহার করতে পারবেন এখানে কোনো বাধা-নিষেধ নাই।

 
২/ আপনি টপ লেভেল ডোমেইন এর মত সাব ডোমেইন এর মধ্যেও বিভিন্ন পোস্টকে রেংক করাতে পারবেন ভালোভাবে এসিও করার মাধ্যমে।
 
৩/ আপনি আপনার সাবডোমেইন যুক্ত ওয়েবসাইটকে ইচ্ছেমতো কাস্টমাইজ করতে পারবেন টপ লেভেল ডোমেইন যুক্ত ওয়েবসাইটের মত।
 
৪/ সাব ডোমেইনের ইউ আর এল অনেক ছোট হয়।
 
৫/ সাব ডোমেইন এর মাধ্যমে আপনি আপনার বিজনেসকে ভালো ভাবে প্রচার করতে পারবেন টপ লেভেল ডোমেইন যুক্ত ওয়েবসাইটের  মত।
 

সাব ডোমেইন এর অসুবিধা কি ?

১/ সাব ডোমেইন এর মধ্যে প্রত্যেকটা পোস্ট কে আলাদা আলাদা ভাবে ইন্ডেক্স করাতে হবে। টপ লেভেল ডোমেইন যুক্ত ওয়েবসাইটের মত।
 
২/ সাব ডোমেইন এর মধ্যে আলাদা ভাবে এসইও করতে হবে।
 

ডোমেইন কিভাবে কিনব ?

আপনি যদি একটি প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তাহলে  আপনাকে একটি ডোমেইন কিনতে হবে। কেননা এটা একটি প্রফেশনাল ওয়েব সাইটের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমানে অনেক ডোমেইন  বিক্রি কারী কোম্পানি রয়েছে। টপ লেভেল ডোমেইন বিক্রি কারী কয়েকটি কোম্পানির নাম দেওয়া হল :

  1.  namecheap
  2. bluehost
  3.  hostgator
  4. IT Nut Hosting
  5.  godaddy
  6. crazy domains

এগুলো ছাড়া আরো অনেক ডোমেইন বিক্রয়কারী কোম্পানি রয়েছে। আপনি যেখান থেকে ইচ্ছা সেখান থেকে কিনতে পারবেন। তবে আগে যাচাই বাছাই করে তারপর কিনবেন। অনেক কোম্পানি আছে যারা ভুয়া। তাই সাবধানে ডোমেইন কিনবেন।

ডোমেইন কেনার আগে কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখবেন

১/ টপ লেভেল ডোমেইন কেনার চেষ্টা করবেন
 
২/ ডোমেইন নেম বাছাই করার সময় ছোট এবং সহজ ( বানানের ক্ষেত্রে এবং উচ্চারণ এর ক্ষেত্রে) নেম বাছাই করবেন। যাতে করে পাঠকরা খুব সহজেই মনে রাখতে পারেন।
 
৩/ কারো সাথে মিল রেখে কখোনই ডোমেইন নেম নির্বাচন করবেন না। এতে করে আপনি অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। চেষ্টা করবেন একটি  ব্র্যান্ড নেম নির্বাচন করার। ফলে আপনার জন্য ব্র্যান্ড তৈরি করতে সহজ হবে।
 
৪/ আপনার ওয়েবসাইটের বিষয়বস্তুর সাথে মিল রেখে আপনার ডোমেইন নাম নির্বাচন করার চেষ্টা করবেন। এতে করে খুব সহজেই পাঠকরা বুঝতে পারবে আপনার ওয়েবসাইটটা কোন টপিকের।
 
৫/ আরেকটি বিষয় খেয়াল রাখবেন আপনার ডোমেইনের ভিতরে কোন ধরনের হাইপেন যেন না থাকে।
 

IT Nut Hosting থেকে ডোমেইন কেনার নিয়ম

এটা মূলত ইন্টারন্যাশনাল একটি কোম্পানি। এটি পেপাল বা মাস্টারকার্ড ছাড়াও আমাদের বাংলাদেশ থেকে বিকাশ বা রকেট থেকে আপনি পেমেন্ট দিতে পারবে।
সর্বপ্রথম IT Nut Hosting এর মধ্যে ঢুকে রেজিস্টার করুন। যেমন নিচের পিকচারে দেওয়া হল

ডোমেইন কি

আপনার নাম , ইমেইল আইডি , এড্রেস , ফোন নাম্বার ইত্যাদি দিয়ে রেজিস্টার করুন। তারপর ডোমেইন অপশন এ যেয়ে রেজিস্টার ডোমেইন অপশনে ক্লিক করুন। তারপর সেখানে রেজিস্ট্রার এ নিউ ডোমেইন অপশন দেখতে পারবেন। যেমন নিচের পিকচারে দেওয়া হল।

ডোমেইন কি

তারপর ওই সার্চ বক্সে আপনার ডোমেইন নেমটা সার্চ দিবেন। ওই নামটা এভেলেবেল আছে কিনা তা জানার জন্য। যদি এভেলেবেল থাকে তাহলে Add to Card এর মধ্যে ক্লিক করবেন। যেমন নিচের পিকচারে দেওয়া হল।

ডোমেইন কি
 
 
তারপর  রকেট অথবা বিকাশের মাধ্যমে ডোমেইন কিনে ফেলুন। যেমন নিচের পিকচারে দেওয়া হল

ডোমেইন কি

এই সিস্টেমে IT Nut Hosting থেকে ডোমেইন কিনে ফেলুন।

পরিশেষে বলব : আমি এতক্ষণ ডোমেইন কি ? ও  ডোমেইন নেইম কেন ব্যবহার করা হয় ?  ডোমেইন কত প্রকার ? ও  সাব ডোমেইন কি ? এবং ডোমেইন কিভাবে কিনব ? ইত্যাদি এসব বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করলাম। যদি এগুলো ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন জানাবেন। পাশাপাশি শেয়ার করতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here