জীবনে সফলতা লাভ করার জন্য আপনাকে সফল হওয়ার উপায় জানতেই হবে। এই উপায় গুলো জানলে আশা করি আপনার জীবন সফল হবেই। 
 

           সফল হওয়ার উপায়

১/কোন সুযোগ হাতছাড়া করা যাবেনা

একবার বিশ্বের সেরা ধনী বিল গেটসকে একজন সাংবাদিক সাক্ষাৎকার নেন। এবং ওই সাংবাদিক বিল গেটসকে ধনী হওয়ার রহস্য সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেন। তখন বিল গেটস  সমস্ত লোককে হতভম্ব করে দিলেন। তিনি তার পকেট থেকে একটি চেক বই বের করলেন। 

এবং তিনি ঐ চেক বইটি সাংবাদিককে দিয়ে বলেন : তুমি তোমার মন মত সংখ্যা বসিয়ে নাও। তখন ওই সাংবাদিক স্তব্ধ হয়ে যান। এ অবস্থা দেখে বিল গেটস তার চেকটা ফেরত নিলেন। এবং বললেন আপনার কাছে পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী সাংবাদিক হওয়ার অনেক বড় একটা সুযোগ ছিল। 
 
কিন্তু আপনি আপনার এই সুযোগটি হারিয়ে ফেললেন। কেননা কোন ধনীরা কোন সুযোগ ছেড়ে দেয় না। অর্থাৎ হাতছাড়া করে না। বরং সে তার থেকে ঝাঁপিয়ে পড়ে। এই সফল হওয়ার উপায় অনেক গুরুত্বপূর্ণ ।
 

 ২/ ব্যর্থতাকে বানান সাফল্যের চাবিকাঠী 

ব্যর্থতাকে বানান সাফল্যের চাবিকাঠী  অতএব আমাদেরকে গ্রহণ করতে হবে ব্যর্থতা। হতাশা দূর করে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। তাহলে পাওয়া যাবে সাফল্য। জ্যাক মা তার জীবনে বহুবার ব্যর্থ হয়েছেন। 
কিন্তু শেষ পর্যায়ে সাফল্যের উচ্চ শিখরে পৌঁছে গেছেন।  
 
তিনি হলেন আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা। এটা চিনা বাণিজ্য সংস্থা। তিনি তার জীবনে প্রায় 17 বার ব্যর্থ হয়েছেন। তারপর সফলতার মুখ দেখতে পেরেছেন।

 ৩/  আত্মবিশ্বাস প্রয়োজন

অর্থাৎ আত্মবিশ্বাস হলো সফল হওয়ার একটি উপায়  আপনার এই আত্মবিশ্বাস আপনার নিজের জীবনকে ঘুরিয়ে দিতে পারে। এক বড় ব্যবসায়ী একটি সমস্যার কারণে  তিনি প্রায় দরিদ্র হয়ে গেলেন। এবং মনের দিক দিয়ে পুরোপুরি তিনি ভেঙ্গে পড়লেন। সবকিছুই ছিল তার সামনে রাতের অন্ধকারের মতো অন্ধকার। 
 
তিনি এমন কোন পথ দেখতে পেলেন না যে পথ দিয়ে সে বাহিরে আসতে পারবে। এই বিপদের সময়। তিনি একটি উদ্যানে বসে বসে ভাবছিল। ঠিক তখনই একজন লোক তার কাধে হাত দিল। তখন সে ওই লোকটার দিকে তাকিয়ে দেখল সে একজন বৃদ্ধ ব্যক্তি। 
 
তখন ওই বৃদ্ধ ব্যক্তি  বলল তোমারকে দেখে মনে হচ্ছে তুমি খুবই উদাস এবং কোন একটি সমস্যায় পড়েছো। এ অবস্থায় আমি কি তোমাকে কোন হেল্প করতে পারি ? ঐ যুবকটি বলল আমাকে কোন ব্যক্তি সাহায্য করতে পারবে না।
 
তখন বুড়ো বললো  কি  সমস্যা ? আমি আপনাকে সাহায্য করব এবার  ছেলেটি রেগে গিয়ে বলল আমার এখন পাঁচ লক্ষ ডলার দরকার।  বৃদ্ধ লোকটি হাসতে লাগলো এবং বলল মাত্র এতোটুকু-ই। তিনি তার পকেট থেকে একটি চেক বই বের করল। 
 
তারপর 5 লক্ষ ডলারের একটা চেক লিখল। তারপর এই চেকটি ওই যুবককে দিল। এবং বলল ঠিক এক বছর পর আমাকে টাকাগুলো ফেরত দেবে এই পার্কে এসে। আমি হলাম Jahan D. Rock failure আমার নাম তুমি নিশ্চয়ই শুনেছ। এটা বলে বৃদ্ধ মানুষটি ওখান থেকে চলে গেল।  
 
জাহান ডি রক সে সময়ের অন্যতম ধনী এবং সবচেয়ে বড় ব্যবসায়ী ছিল। যুবকটি চেকটির দিকে তাকিয়ে  ভেবেছিল একটি অচেনা লোকটিকে   আমার ওপর এত ভরসা করছে অথচ আমি আমার নিজের উপর ভরসা করছি না। 
 
তারপরে ছেলেটি কেবল চেকটিই নয় আত্মবিশ্বাসের সাথে ঘরে ফিরে যায়। চেকটি আলমারিটিতে রেখে দিলেন। 
 
 
তারপর ঐ যুবক নিজে নিজে   প্রতিশ্রুতি নিল যে,  আমাকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। ধীরে ধীরে সে ব্যবসা উন্নত করতে লাগলো এবং সে সফলও হল। এক বছর পরে যুবকটি পার্কে গেল চেকটি নিয়ে । তিনি  বৃদ্ধের জন্য  অপেক্ষা করতে লাগলেন । প্রায়  ২-৩ ঘন্টা অপেক্ষা করার পর দেখলেন  বৃদ্ধ লোকটি আসছে।
 
তার সাথে দেখতে পেল দুজন নার্স আসতেছে। ওই যুবক ঐ নার্স দুজনকে জিজ্ঞাসা করল এই বৃদ্ধ ব্যক্তিটির কি হয়েছে ?  নার্সারা বলল আপনাকেও কি চেক দিয়েছে? সে একজন পাগল । Jahan D. Rock failure নামক ব্যাক্তির সাথে তার চেহারা অধিকাংশই মিলে যায়।
 
তাই সে নিজেকে Jahan D. Rock failure দাবি করে। ঐ যুবকটি  চিন্তা করতে লাগলো। আমি কীভাবে এত উন্নতি করেছি ? মূলত এই যুবকের নিজের উপর আত্মবিশ্বাস ছিল জার কারণে সে এতো উন্নতির উচ্চ চূড়ায় পৌঁছাতে পেরেছে।
 
 

৪/ ব্যক্তি সচেতনতা প্রয়োজন   

ব্যক্তি সচেতনতা প্রয়োজন কেননা ব্যক্তির সচেতনতা মানুষের বুদ্ধির মাত্রা দ্বিগুণ বেড়ে যায়। আর যে সমস্ত ব্যক্তিরা সফল হয়েছেন তারা সমস্ত কাজের ক্ষেত্রে সচেতন থাকে।
 

৫/  প্রবল ইচ্ছা শক্তি প্রয়োজন 

অর্থাৎ প্রবল ইচ্ছা শক্তি হলো সফল হওয়ার একটি উপায় । অনেক ইচ্ছা শক্তি প্রয়োজন। যাতে করে আপনি কঠিন থেকে কঠিন কাজ খুব সহজেই করতে পারেন। যেমন : পঙ্গু ছিলেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি রুজভেল্ট। দেশের অর্থনীতি ভেঙে পড়লে তিনি দেশের হাল ধরেন। শারীরিকভাবে অক্ষম হলেও প্রবল ইচ্ছাশক্তি রুজভেল্টকে একজন সফল রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে তুলে ধরে।

৬/ প্রতিটা বিষয় সাধারণভাবে ভাবুন। ও সেটাকে অর্জন করুন

অর্থাৎ প্রত্যেকটা জিনিসের ক্ষেত্রে সাধারণভাবে ভাবুন কঠিনভাবে ভাববেন না। যেমন বাচ্চারা তাদের জীবনের গন্তব্য খুঁজে পায় কারণ তারা সাধারণভাবে ভাবে। কোন কিছুকে কঠিনভাবে ভাবার চেষ্টা করে না। অতএব আপনি বাচ্চাদের মত ভাবতে শিখুন। 
 
এবং তাদের মত করে ভাবার প্র্যাকটিস করুন। আপনি যদি প্রতিদিন ধ্যান করা অভ্যাস করতে পারেন তাহলে ধীরে ধীরে আপনার ভাবনা শক্তি বৃদ্ধি পাবে। আর আপনার ভাবনা শক্তি বৃদ্ধি পেলে মনের শক্তি বাড়বে। আর মনের শক্তি বাড়লে জীবনে সফল হতে পারবেন। এই জীবনে সফল হওয়ার উপায়টি অনেক গুরুত্বপূর্ণ।
 

৭/ আপনার নিজের স্বাস্থ্যের প্রতি মনোযোগ  হলো সফল হওয়ার  উপায়

জীবনে সফল হওয়ার জন্য নিজের শারীরিক এবং মানসিক স্বাস্থ্য উভয়টাই ঠিক থাকা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কেননা স্বাস্থ্য যদি ঠিক না থাকে তাহলে আপনার কাজের প্রতি অলসতা আসবে ,মনোযোগ বসবে না। কাজের মধ্যে অলসতা আসলে তাহলে আপনি কাজে সফলতা অর্জন করতে পারবেন না। 
 
আর এভাবে আপনি আপনার জীবনে সফলতা লাভ করতে পারবেন না। এই কারণে আপনার জীবনে সফলতা আনার জন্য আপনারকে আপনার শরীরের প্রতি যত্ন নিতে হবে। ঠিক মতো ব্যায়াম করতে হবে। পাশাপাশি খাবারের দিকে মনোযোগ দিতে হবে।
 

৮/ সাহসী হতে হবে

এ পর্যন্ত যারা সফলতা লাভ করেছেন তাদের অধিকাংশই পর্যাপ্ত সাহস এর কারনে সফলতা লাভ করেছেন। তারা হলো এমন ব্যক্তি যারা তাদের নিজের ব্যর্থতার উপরেও জীবনে ঝুঁকি নিতে ইচ্ছুক। অতএব আপনি যদি জীবনে সফল হতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে সাহসি হতে হবে। এবং ঝুঁকি নিতে হবে।
 

৯/ প্রতিযোগিতার মনোভাব থাকতে হবে

অর্থাৎ প্রতিযোগিতার মনোভাব হলো সফল হওয়ার একটি উপায়  যারা জীবনে সফলতা লাভ করেছেন তাদের প্রত্যেকের মাঝে প্রতিযোগিতার মনোভাব রয়েছে। কেননা এর দ্বারা কাজের প্রতি পরিপূর্ণ মনোযোগ বসে। এবং জীবনে উন্নতি করার প্রতি প্রতিজ্ঞা জন্মায়। অতএব আপনি যদি জীবনে সফল হতে চান তাহলে নিজের মাঝে প্রতিযোগিতার মনোভাব তৈরি করতে শিখুন। তাহলে আপনি সফল হতে পারবেন।

১০/ নিজের অভ্যাস পরিবর্তন করতে হবে

অর্থাৎনিজের অভ্যাস পরিবর্তন হলো সফল হওয়ার একটি উপায়   অবশ্যই আপনাকে কয়েকটি অভ্যাস পরিবর্তন করতেই হবে। যেমন অনেকেই আমরা বলে থাকি ১/ কাজটি অনেক সহজ বেশিক্ষণ টাইম লাগবে না। ২/ আজ থাক , কালকে করব , অনেক সময় আছে। ইত্যাদি এসব অভ্যাস আপনাকে অবশ্যই পরিত্যাগ করতে হবে। যদি এই অভ্যাসগুলো পরিত্যাগ করতে পারেন তাহলে অবশ্যই আপনি সফল হতে পারবেন।

১১/ চুপচাপ থাকার অভ্যাস করুন

অর্থাৎ কম কথা বলে কাজ বেশি করুন। কেননা সফল ব্যক্তিরা কথা কম বলে। কথা কম বলার দ্বারা কাজের প্রতি মনোযোগ বাড়ে। মানুষ অনেক কথাই বলবে তাদের কথার প্রতি কান দিবেন না।
 
একটি কথা
আপনি কখনো অন্যের ইচ্ছামত চলবেন না। বরং যে কাজটি নিজের ভাল লাগে ঐ কাজটি করবেন। পাশাপাশি জীবনের একটি লক্ষ্য উদ্দেশ্য নির্ধারণ করুন। তাহলে আপনি একদিন সফল হবেনই।
 
পরিশেষে বলব: উপরে উল্লেখিত  সফল হওয়ার উপায় যদি আপনি ফলো করেন  তাহলে আশা করি আপনি জীবনে  সফল হবেনই। যদি উপায় গুলো ভালো লাগে তাহলে কমেন্ট করে জানাবেন। এবং পাশাপাশি শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ।
 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here